প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বরিশালে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রতারক চক্রের প্রধানসহ আটক ১০

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল: প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ডিভাইসের মাধ্যমে উত্তর বলে দেয়া চক্রের হোতা ছাত্রলীগ নেতাসহ ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় উদ্ধার করা হয়েছে বেশ কয়েকটি ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস ও নগদ দেড় লাখ টাকা।

আটককৃতরা হলো, বরিশাল সরকারী সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম বাপ্পি ও তার সহযোগী শহিদুল ইসলাম সোহেল, ফাতেমা বেগম, নাজমিন নাহার মনি, এলিনা বেগম রুপা, আনোয়ার হোসেন ফকির, আহসান হাবিব হাওলাদার, জহির উদ্দিন জুয়েল, জায়েদা খাতুন ও বাদল বেপারী।

শনিবার সকালে কোতোয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহিউদ্দিন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার দিবাগত রাতে নগরীর গীর্জা মহল্লার আবাসিক হোটেল ইম্পিরিয়ালে অভিযান চালানো হয়। এসময় হোটেলের ৪০৬ নম্বর কক্ষ থেকে শহিদুল ইসলাম সোহেলকে আটক করা হয়।

পাশাপাশি ওইসময় হোটেল থেকে পরীক্ষার্থী ও তাদের স্বজনসহ আরও ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। পরে তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শনিবার ভোরে নগরীর সৈয়দ সরকারী হাতেম আলী কলেজ সংলগ্ন নিউ সার্কুলার রোডের একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে সৈয়দ হাতেমআলী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম বাপ্পিসহ আরও দুই পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয়।

এদিকে শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কোতোয়ালী মডেল থানায় প্রেসব্রিফিংয়ে নগর পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার মাহফুজুর রহমান জানান, দশ জনকে আটকের পর প্রতারক চক্রের কাছ থেকে নগদ দেড় লাখ টাকা, তিনটি ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস ও আটটি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়েছে।

এরা মূলত শনিবার বরিশালে অনুষ্ঠিত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ডিভাইসের মাধ্যমে উত্তর বলে দেয়ার পরিকল্পনা করেছিলো। রেজাউল ইসলাম বাপ্পিসহ প্রতারক চক্রের ১০ জনের এই টিমটি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। অভিযানের নেতৃত্বে থাকা মেট্রোপলিটনের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) গোলাম রউফ খান বলেন, আটককৃতদের মধ্যে চারজন বিভিন্ন পরীক্ষায় প্রক্সি দেয়ার কাজ করতো। আর বাকীরা ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস এর মাধ্যমে পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নের উত্তর বলে দিতো। আটক ১০ জনের বিরুদ্ধে শনিবার দুপুরে কোতোয়ালী মডেল থানার এসআই মহিউদ্দিন পিপিএম বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ