প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে তিস্তার আলোচনা হবে কিনা জানে না যৌথ নদী কমিশন

মতিনুজ্জামান মিটু : প্রধানমন্ত্রীর এবারের ভারত সফরে তিস্তার পানি নিয়ে কোনো আলোচনা হবে কিনা বা কি আলোচনা হবে তা জানে না যৌথ নদী কমিশন, বাংলাদেশ। যৌথ নদী কমিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহমুদুর রহমান বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ভারতের পশ্চিমবঙ্গ সফরের সময় তিস্তা নদী বা পানি নিয়ে আলোচনা হবে কি হবেনা আমরা জানি না। এ ব্যাপারে আমাদের সঙ্গে কোনো আলোচনা হয়নি বা জানানোও হয়নি। এ বিষয়ে আমাদের কখনোই কিছু জানানো হয়না। বাংলাদেশ পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ও এ বিষয়ে আমাদের কিছু জানায়নি।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর এবারের ভারত সফরে তিস্তার পানির একটা সুরাহা হবে বলে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারাসহ অনেকে আশায় বুক বেঁধে রয়েছেন। দীর্ঘকাল ধরে তিস্তায় বলতে গেলে পানি নেই। শুষ্ক মৌসুমে সামান্য পানিতে তিস্তার মাছ ও পরিবেশ এবং প্রতিবেশকে কোনো রকমে রক্ষার চেষ্টা করা হচ্ছে। অপ্রতুল পানির কারণে এখানে তিস্তার পানি দিয়ে ধানসহ অন্যান্য ফসল আবাদ করা সম্ভব হচ্ছেনা। প্রায় বন্ধ হয়ে আছে তিস্তা সেচ প্রকল্প। বিরুপ পরিস্থিতিতে তিস্তা সেচ প্রকল্পের আধুনিকায়নের কাজ বাস্তবায়ন থেকেও মুখ ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে।

এব্যাপারে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার মো. শহিদুল ইসলাম খান বলেন, এডিবির অর্থায়নে বাপাউবো’র এক সমিক্ষায় তিস্তা সেচ প্রকল্পকে আধুনিকায়নের কথা বলা হয়েছিল। সমিক্ষা অনুযায়ি মাটির উপরের ক্যানেলের পরিবর্তে মাটির নীচের প্লাস্টিক বা পিভিসি পাইপে প্রকল্প এলাকায় পানি সরবরাহের কথা। কিন্তু উৎস মুখ অর্থাৎ তিস্তা নদীতে পানি প্রাপ্যতার অনিশ্চয়তায় আপাতত এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন সম্ভব হচ্ছে না। চুক্তি আপ গ্রেড হলে তিস্তা সেচ প্রকল্প আধুনিকায়ন করা যাবে, নইলৈ নয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত