প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভোট গেছে যে পথে, বিচার ও ভাতের অধিকার একই পথে হরণ হচ্ছে : সিপিবি

রফিক আহমেদ : বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি’র) কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক জলি তালুকদার বলেছেন, ভোট গেছে যে পথে, বিচার ও ভাতের অধিকার একই পথে হরণ হচ্ছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের চরম মূল্যবৃদ্ধি এবং অব্যাহত খুন-গুম-অপহরণ-ধর্ষণ ও নারী নিপীড়নের ঘটনায় বিচারহীনতার প্রতিবাদে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার সকাল ১০টায় শান্তিনগর বাজারের সামনে শান্তিনগর শাখার উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

জলি তালুকদার অবিলম্বে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ; মুনাফাখোর মজুদদার, চোরাকারবারি, সিন্ডিকেটের হোতাদের গ্রেফতারের দাবি জানান। একইসাথে চলমান বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বন্ধ এবং সকল খুন-ধর্ষণ ও নারী নিপীড়নের বিচার করারও দাবি জানান তিনি।

সিপিবি শান্তিনগর শাখার সদস্য ও পরিবহন শ্রমিক নেতা হযরত আলীর সভাপতিত্বে এবং শাখার সম্পাদক মঞ্জুর মঈনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন সিপিবি’র পল্টন থানা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট এম এ তাহের, সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব সাহা, সাভার উপজেলা কমিটির সম্পাদক সাজেদা সাজু, শ্রমিকনেতা হোসেন আলী, ইয়াসিন স্বপন, যুবনেতা জাহিদ নগর, ছাত্রনেতা কফিলউদ্দিন মোহাম্মদ শান্ত ও বিল্লাল হোসেন প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, রমজান মাসে অস্বাভাবিকভাবে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির ফলে সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র খেটে খাওয়া গরিব, নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। অসাধু ব্যবসায়ীদের অতিমুনাফার জন্য দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির পাশাপাশি খাদ্যে ভেজালও বেড়েছে।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, মুক্তবাজার অর্থনীতির কারণে বাজারে নৈরাজ্য দেখা দিয়েছে। লুটপাটতন্ত্র সর্বত্র জেঁকে বসেছে। সাধারণ মানুষের প্রতি সরকারের কোনো দায় নেই। সরকার জিম্মি অসাধু সিন্ডিকেটের কাছে। বাজারের দুষ্টচক্র সিন্ডিকেট এখন বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে। কিন্তু সরকার তাদেরকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। কারণ বাজারের নিয়ন্ত্রকরাই এখন সরকারকে নিয়ন্ত্রণ করছে।

সিপিবি নেতৃবৃন্দ দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ ও খাদ্যে ভেজাল ঠেকাতে সরকারের গণবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান। সমাবেশ থেকে অব্যাহত খুন-ধর্ষণের প্রতিবাদ জানিয়ে বলা হয়, সরকার জনগণের ভোটের অধিকার হরণ শেষে এখন ভাতের অধিকার এবং ন্যায় বিচারের অধিকার কেড়ে নিতে তৎপর।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত