প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজধানীতে দুই শিক্ষকসহ আনসার আল ইসলামের ৭ সদস্য আটক

সুজন কৈরী : ‘জঙ্গিবাদকে হ্যা বলুন’, গাজওয়াতুল হিন্দ ও এসো কাফেলাবদ্ধ হই ফেসবুক গ্রæপের সক্রিয় সদস্যসহ নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের ৭ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো মো. কামাল উদ্দিন (৩৭), সিফাত (৩০), দিাদরুল ইসলাম (২৬), রিফাতুল্লাহ সাব্বি খান (১৯), মো. শীতল মিয়া (২৭), মুহিবুর রহমান ওরফে আবু উম্মা ওরফে বাবু (২৪) ও মো. এরশাদুল হক টিটু (২৪)।

এদের মধ্যে মহিবুর রহমান ও এরশাদুল হক বøুমফিল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের ইংরেজির শিক্ষক। আটককৃতদের কাছ থেকে বিষ্ফোরক ও বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব বলছে, তারা বড় ধরণের নাশকতা সৃষ্টির জন্য ছোট ছোট গ্রæপে বিভক্ত হচ্ছিল। র‌্যাবের সক্রিয়তার কারণে তাদের পরিকল্পনা ভেস্তে গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে কাওরান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৩ অধিনায়ক লে. কর্ণেল এরমানুল হাসান।

তিনি জানান, গোয়েন্দা তথ্যে মুগদা ও যাত্রাবাড়িতে অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার ভোরে ৫ জনকে আটক করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বারিধারা এলাকা থেকে আরো দুইজনকে আটক করা হয়। আটকদের মধ্যে মহিবুর ও এরশাদুল দুই বন্ধু। তারা শিক্ষকতার আড়ালে জঙ্গি কার্যক্রম চালাচ্ছিল। মুহিবুল আনসার আল ইসলামের সমন্বয়ক এবং পরিকল্পনাকারী। সে গোপনে দাওয়া-হালকার কার্যক্রম পরিচালনা করত। ফেসবুক পেজ ‘জঙ্গিবাদকে হ্যা বলুন’, গাজওয়াতুল হিন্দ ও এসো কাফেলাবদ্ধ হই এর সদস্য ছিল।

আর এরশাদুল হক টিটু একজন রিক্রুটার ও মোটিভেটর। সেও ইংরেজি স্কুলে শিক্ষকতা করতেন এবং মুহিবুল রহমান ওরফে আবু উম্মা ওরফে বাবু’র মতো রিক্রুটার ও মোটিভেটর ছিলেন। জঙ্গিবাদকে উস্কে দেওয়া ফেসবুক পেজগুলোতে বক্তব্য, অডিও, ভিডিও এবং জিহাদী পোষ্ট শেয়ার করতেন। এছাড়া সংগঠনের কর্মীদের জিহাদে উদ্ধুদ্ধ করত। সে বোমা তৈরিকে বেশ দক্ষ এবং রাজধানীতে আনসার আল ইসলামের আঞলিক সমন্বয়ক ছিলেন। র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক আরো জানান, আটককৃত বাকি সদস্য তাদের নিজ জেলার সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করতেন। তারা রাজধানীতে তাদের সাংগঠনিক মিটিংয়ে এসেছিল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত