প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিআইবিএমের গবেষণা
ব্যাংক খাতে ১ বছরে কর্মী কমেছে ৯ হাজার

আদম মালেক : ব্যাংকিং খাতে প্রতিনিয়তই বাড়ছে কর্মী ছাঁটাই। পরিচালকদের অসদাচরণের কারণেও অনেকে পদত্যাগ করছেন। এতে কর্মকর্তাদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। গত এক বছরেই ব্যাংকিং খাতে ৯ হাজারেরও বেশী কর্মী ছাঁটাই হয়েছেন ও পদত্যাগ করছেন। রাষ্ট্রায়াত্ত ব্যাংকে ১৬ হাজার পদ খালি রয়েছে। নারী কর্মীদের সন্ধ্যা ছয়টার পর ব্যাংকের দায়িত্ব পালন থেকে বিরত রাখার নির্দেশনা থাকলেও তা বাস্তবায়ন হচ্ছে না।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর মিরপুরে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টে (বিআইবিএম) অডিটোরিয়ামে ‘হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট অব ব্যাংকস’ শীর্ষক বার্ষিক পর্যালোচনা কর্মশালায় উপস্থাপিত গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে আসে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামাল। কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন বিআইবিএমের মহাপরিচালক ড.তৌফিক আহমদ চৌধূরী।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. বরকত-এ-খোদা, বিআইবিএমের পরিচালক (প্রশিক্ষণ) ড.শাহ মো. আহসান হাবীব, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক নির্বাহী পরিচালক এবং বিআইবিএমের সুপারনিউমারারি অধ্যাপক ইয়াছিন আলি, বিআইবিএমের সাবেক চেয়ার প্রফেসর এস এ চৌধুরী, প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের উপ -ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম. এ. আব্দুল্লাহ, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেডের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং কোম্পানি সচিব জন সরকার প্রমুখ।

কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামাল বলেন, ব্যাংকিং খাতের মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ ব্যাংক এবং অর্থ মন্ত্রণালয় বেশ কিছু সার্কুলার জারি করেছে। এসব সার্কুলার যথাযথ পরিপালনের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে নজরদারি করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিগত ২০১৬ সালে ব্যাংকিং খাতে মোট কর্মকর্তা ছিল ৯০ হাজার ২৬৫ জন। ছাঁটাই, পদত্যাগসহ বিভিন্ন কারণে ২০১৭ সালে এসে কর্মকর্তার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮১ হাজার ২৪৫ জন। এক বছরে কর্মকর্তা কমেছে ৯ হাজার ২০ জন। রাষ্ট্রায়াত্ত ব্যাংকেও ১৬ হাজার পদ খালি রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত