প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রোজার শুরুতেই পাথরঘাটায় দ্রব্যমূল্য লাগামহীন

ইমরান হোসাইন, (পাথরঘাটা) বরগুনা : রোজা উপলক্ষে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়েই চলেছে। উপজেলার পৌর শহরসহ গ্রাম-গঞ্জের কাঁচা বাজার হয়ে পড়েছে অস্থিতিশীল। বাজার করতে এসে হিমশিম খেতে হচ্ছে ক্রেতাদের। রোজার আগের তুলনায় এখন দাম অনেক বেশি। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চাল, ডাল, বেগুন, লেবু, চিড়া, মুড়ি, শশা, টমেটো, কাকরোল, কাঁচামরিচ ও মুরগির দাম বেড়েছে অনেক। অন্যদিকে, দাম নিয়ন্ত্রণে ও তদারকি না থাকায় ক্রেতারা হতাশ।

২৪মে (বৃহস্পতিবার) সকালে উপজেলার পৌর শহরের কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, বেশকিছু সবজির দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা। একইভাবে ৩০ টাকা কেজি দরের শশা সপ্তাহের ব্যবধানে এর দাম ৫০ টাকার কোটায়। ৭০ টাকা থেকে ৮০ টাকা কেজি দরের লম্বা বেগুন সর্বনিম্ন ৮০ থেকে ৯০ টাকা, ৫০ টাকা কেজি দরের টমেটো ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, ২০ টাকা হালির লেবু ৩০ টাকার ঘরে। সরেজমিন রমজানে নিত্য চাহিদার এমন প্রতিটি পণ্যের দামই আগের চেয়ে অনেক বেশি দেখা গেছে।

পাথরঘাটা কাঁচাবাজারের এক বিক্রেতা জানান, চিনির দাম রোজার প্রথম দিকে বেশি ছিল এখন একটু কম, আজ চিনি বিক্রি করছি, কেজি প্রতি ৬০ টাকা। সপ্তাহ খানেক আগেও বিক্রি করেছি ৬৫ টাকা দরে। চিনির দাম কমলেও রোজায় ইফতারির অন্যতম মুড়ির দামও এবার চড়া। রমজানের প্রথম দিন থেকেই ১১০থেকে ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে মুড়ি। বেড়েছে চিড়ার দামও। সাদা চিড়া ৪০টাকা থেকে বেড়ে ৪৫টাকায় বিক্রি হচ্ছে। রোজায় বেড়েছে ছোলার দামও ৬৫ থাকলে ৫ টাকা বেড়ে ৭০ টাকায় বিক্রি হচেছ। বুট আর বেসনের দাম অবশ্য নতুন করে বাড়েনি। বিক্রেতাদের আপত্তিতে ক্রেতা সাধারণের হতাশা দেখা গেছে।

পাথরঘাটার সবকটি বাজারে গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৫০০ টাকা কেজি দরে। খাসির মাংস সাতশ ৫০টাকা দরে ব্রিক্রি করতে দেখা গেছে। দরদাম না করে ক্রেতাদেরও সেই দামেই কিনতে হচ্ছে। দরদাম করে ২০ টাকা কমানো সফল ক্রেতার সংখ্যা হাতেগোনা দুই/এক জন। নির্ধারণ না করা মুরগির দামও বেড়ে গেছে, রোজা শুরুর প্রথম দিকে বয়লার ১৩০ টাকা কেজি দরের তুলনায় মঙ্গলবার থেকে কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে ১৫০ টাকায়, দেশি মুরগি রোজার আগে ৩০০ টাকায় ব্রিক্রি হলেও কেজিতে ৫০ টাকা বেড়ে তিনশত ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। পাথরঘাটা বাজারে একটি দোকানে দাম শুনে পাঁচজন ক্রেতাকে ফিরে যেতে দেখা গেছে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত