প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুই সপ্তাহেও ঘোষণা হয়নি ছাত্রলীগের কমিটি

আহমেদ জাফর: ছাত্রলীগের সম্মেলন শেষ হয়েছে ১২ দিন কিন্তু কমিটি ঘোষণা করা হয়নি এখনোও। কমিটির শীর্ষ দুই পদে আবেদন করেছে প্রায় ৩২৩ জন এর মধ্যে সভাপতি পদে ১১১ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে ২১২ জন। আবার এদের মধ্যে অর্ধেক বয়েসের কারণে বাদ পরেছেন।

আর শীর্ষ দুই পদে যারাই আলোচনায় আসে, তাদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওঠে মাদক,ছাত্রত্বহীন, বিবাহিত, ব্যবসায়ীসহ নানা অভিযোগ। আর এসব ছড়িয়ে পড়ে অনলাইনপের্টাল,বিভিন্ন ফেসবুকে, শুরু হয় এক অপরের প্রতি অভিযোগের কাদা ছোড়াছুড়ি।

বারাবরই অভিযোগছিল ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশকারী,ছাত্রশিবির, ছাত্রদল ঢুকেছে। তাই এবার প্রধানমন্ত্রীর নিদের্শ অনুযায়ী কমিটি ঘোষণা করা হবে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন ছাত্রলীগের কমিটি হবে সিলেকশনের মধ্যামে। তারপর ও ছাত্রলীগের নেতাদের মধ্যে সমন্বয়ের তাগিদ দেয়া হয়। আর এসব যাচাই বাচাই চলছে,তাই কমিটির দিতে দেরী হচ্ছে।

ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক শাজাহান দেলোয়ার আমাদেরসময়.কমকে বলেন, আওয়ামী লীগের সভাপতির নিদের্শ অনুযায়ী কমিটি দেয়া হবে। যেনতেন ভাবে ভাবে এবার কমিটি দেয়া হবে না। তাই যাচাই বাচাই করে প্রধানমর্ন্ত্রী নিজেই কমিটি ঘোষণা করবেন। আমরা নেত্রীর নিদের্শের অপেক্ষায় আছি।

সাবেক ছাত্রলীগের এক নেতা বলেন, ছাত্রলীগের কমিটি সুস্থ্যভাবে সম্পূর্ণ করার জন্য আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলী সদস্য,যুগ্নসাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদকসহ বেশ কয়েক জনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তারা নিরলসভাব বিষয়টি পর্যবেক্ষন করছে।

তিনি বলেন যোগ্য নেতৃত্ব আনার জন্য এমনোও হতে পারে যে, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কোনো ফরম নেননি কিন্তু তার বিষয় কোনো অভিযোগ নাই তাকেও কমিটির শীর্ষ পদে দেয়া হতে পারে। এছাড়া নারী বা সংখ্যালঘু এমন একজন আসতে পারে শীর্ষ পদে। তবে কমিটির কাজ প্রায় শেষ পর্যায় রয়েছে আগামী তিনি চার দিনের মধ্যে কমিটি দেয়া হতে পারে।

ছাত্রলীগের সহসভাপতি মাকসুদুর রহমান মিঠু আমাদেরসময়.কমকে বলেন,যারা ছাত্রলীগ হয়েও অন্য ছাত্রলীগের কোনো পদপ্রত্যাশীর বিরুদ্ধে অভিযোগ বা অপ্রচার করে এসব বিষয় ছাত্রলীগের জন্য খুবই দুঃখ জনক এবং ইমেজের ব্যাপার, এতে ছাত্রলীগের সম্মানহানী হয়। তবে যে যাই করুক নেত্রী ছাত্রলীগের যোগ্যব্যক্তির হাতে নেতৃত্ব ঠিকই তুলে দিবেন।

অভিযোগের পাল্লায় আসে মাদকের তালিকায় কার নাম,কেউ আবার বিবাহিত তার প্রমাণপত্র, কার পরিবার মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতা কারী, ছাত্রত্বহীনতা ছাত্র শিবিরের সদস্য এনিয়ে শুরু হয় কাদা ছোড়াছুরি। ব্যবসায়ী জড়িত থাকার প্রামণসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার চালায়। যার নামই আলোচানায় আসে তার বিরুদ্ধেই সমাজিক যোগাযোগমাধ্যামে তুলে ধারা হয় এ প্রচার। তবে এসব অভিযোগ ওঠেছে প্রায় ৪০জন প্রার্থীর বিরুদ্ধে।

গত ১১ও ১২ মে ছাত্রলীগের ২৯তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এবার সিদ্ধান্ত হয় কমিটি হবে ভোটে নয় বরং সমোঝতার মাধ্যমে সিলেকশনে। তাও ঘোষণা দিয়েছে আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী। আর যাচাই বাচাই করে কমিটি ঘোষণা করবেন দলের সভাপতি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত