প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ছেলেকে বাড়ি ছাড়া করতে আদালতে বাবা-মা!

তানভীর রিজভী : যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের এক দম্পতি তাদের ৩০ বছর বয়সী ছেলেকে বাড়ি থেকে বের করতে ব্যর্থ হয়ে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন।

দম্পতির সন্তানের নাম মাইকেল রটোন্ডো। তাকে বাড়ি ছেড়ে দিতে পাঁচবার নোটিশ দিয়েছেন তার বাবা-মা ক্রিস্টিনা রটোন্ডো ও মার্ক রটোন্ডো। কিন্তু মাইকেল কোনোভাবেই বাড়ি ছাড়তে রাজি ছিলেন না। পরে বাধ্য হয়ে আদালতের শরণাপন্ন হন তার মা-বাবা।

ঘটনার সূত্রপাত ফেব্রুয়ারিতে, সে সময় ওই দম্পতি প্রথমবারের মতো ছেলেকে তাদের বাড়ি ছেড়ে দিতে বলেন। চাকরিহীন অবস্থায় গত ৮ বছর কোনো ভাড়া পরিশোধ ছাড়াই বাবা-মায়ের বাড়িতে অবস্থান করছিলেন মাইকেল।

২ ফেব্রুয়ারি ছেলেকে দেওয়া বাড়ি ছাড়ার নোটিশে এ দম্পতি লিখেছেন, ‘তোমাকে যত দ্রুত সম্ভব এ বাড়ি ছাড়তে হবে। তোমার হাতে ১৪ দিন সময় আছে। তোমাকে আর ফিরতে দেওয়া হবে না।’

কিন্তু ১১ দিনেও ছেলের কাছ থেকে কোনো জবাব না পেয়ে ১৩ ফেব্রুয়ারি তারা দ্বিতীয় নোটিশ পাঠান। সেখানে লেখা ছিল, ‘তোমাকে বাড়ি খালি করে দিতে হবে। তুমি যদি ২০০৮ সালের ১৫ মার্চের মধ্যে বাড়ি খালি না করে দাও, তাহলে তোমার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

১৮ ফেব্রুয়ারিতে দেওয়া তৃতীয় নোটিশে রটোন্ডো দম্পতি তাদের বেকার ছেলেকে এক হাজার ডলার দেওয়ার প্রস্তাব দেন ও দ্রুত বাড়ি ছেড়ে দিতে বলেন। সাথে নতুন চাকরি খোঁজারও পরামর্শ দেন।

নোটিশে ছেলের উদ্দেশে তারা বলেন, ‘তোমার মতো মানুষদের জন্যও চাকরি আছে। একটি খুঁজে নাও। তোমাকে কাজ করতে হবে।’

মার্চ মাসেই এ দম্পতি আরও দুটি নোটিশ পাঠান। কিন্তু তাদের ছেলে বাড়ি ছাড়তে অপারগতা প্রকাশ করেন। কোনো উপায় খুঁজে না পেয়ে তারা পরে আদালতের দারস্থ হন। ৭ মে মাইকেলকে বাড়িছাড়া করতে আদালতের অনুমতি প্রার্থনা করেন মা ক্রিস্টিনা রটোন্ডো।

আদালতের শুনানিতে মাইকেল বলেন, ‘বাড়ি ছাড়তে হলে আমাকে অন্তত ছয় মাস সময় দিতে হবে। এ ছাড়া বাড়ির কোনো খরচ বহনের জন্য আমাকে কখনো বলা হয়নি।’

নিজের বাবা-মায়ের বাড়ি ছাড়ার জন্য আদালত পর্যন্ত আসার বিষয়টিকে ‘বিব্রতকর’ বলে উল্লেখ করেন মাইকেল।

সংক্ষিপ্ত শুনানি শেষে আদালত মাইকেলকে তার বাবা-মায়ের বাড়ি ছেড়ে দেওয়ার আদেশ দেন। পরে এই আদেশকে ‘জঘন্য’ হিসেবে অভিহিত করেন মাইকেল। সূত্র: সিএনএন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত