প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ধামরাইয়ে ভেজাল বিরোধী অভিযান

মো. আল মামুন খান, ধামরাই: পবিত্র মাহে রমজান মাসে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে ক্রেতারা যেন কোন প্রকার প্রতারিত না হয়, তাই সর্বস্তরের মানুষের শান্তির জন্য সারা দেশে পুরো মাসজুড়ে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনার কাজ শুরু হয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকার ধামরাইয়ে ২২ মে (মঙ্গলবার) বিকেলে পৌরসভার প্রধান বাজারে খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে পৌর কর্তৃপক্ষ। এসময় দুধে পানি মেশানোর ফলে দুই মন দুধ ফেলে পালিয়ে যায় বিক্রেতা। পরে এ দুধ ফেলে দেওয়া হয়। এছাড়া আম, জিলাপী ও পিয়াজুতে ভেজাল থাকায় তা ধ্বংস করা হয়।

পৌরসভার স্যানেটারী ইন্সপেক্টর মোকলেছুর রহমান জানান, ‘অসাধু ব্যবসায়ীরা রমজান মাসে দুধে পানি মিশিয়ে বিক্রি করার খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালানো হয়। পরে দুধে ল্যাকটোমিটার দিলে দেখা যায় দুধে পানি মেশানো হয়েছে। এসময় ব্যবসায়ীরা দুধ রেখে পালিয়ে যায়’।

উল্লেখ্য, পবিত্র রমজান মাসে ভোক্তা পর্যায়ে ভেজালমুক্ত খাদ্য-পানীয় এবং পণ্যসামগ্রী সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ঢাকাসহ সারা দেশে নিয়মিত ভেজালবিরোধী বিশেষ অভিযান চালানো হচ্ছে। আকস্মিকভাবে এ অভিযান পরিচালনা করবে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই)। ভেজাল ও নিম্নমানের খাদ্যপণ্য, পানীয় প্রস্তুত এবং বিক্রি থেকে অসাধু ব্যবসায়ীদের রুখতেই এ অভিযান পরিচালনার মূল উদ্দেশ্য, যা এই রমজানে ভোক্তা পর্যায়ে নিরাপদ খাদ্য সরবরাহ নিশ্চিত করতে সহায়ক হবে। রমজানে রোজাদাররা সচরাচর মুড়ি, কলা, খেজুর, আম, সফ্ট ড্রিংক পাউডার, কার্বোনেটেড বেভারেজ, ফ্রুট সিরাপ, ফ্রুট জুস, ফ্রুট ড্রিংকস, ভোজ্যতেল, সরিষার তেল, ঘি, পাস্তুরিত দুধ, নুডলস, ইনস্ট্যান্ট নুডলস, লাচ্ছা সেমাই, সেমাই, পানি, ডেক্সট্রোজ মনোহাইড্রেড এ জাতীয় খাদ্য ও পানীয় গ্রহণ করে থাকেন। আকস্মিকভাবে পরিচালিত অভিযানগুলোতে বিএসটিআই এসবের ওপর বিশেষভাবে নজর রাখবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত