প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কাঠ দিয়ে পিটিয়ে বাবাকে মেরেই ফেলল ছেলে!

ডেস্ক রিপোর্ট : দিনাজপুর সদর উপজেলার পল্লীতে ছেলের কাঠের আঘাতে খতিবউদ্দিন (৫০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় ঘাতক ছেলে সোহেল রানাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে দিনাজপুর সদর উপজেলার কমলপুর ইউনিয়নের পুর্ব শিবরামপুর গ্রামে।

পুলিশ জানায়, খতিবউদ্দিনের ছেলে সোহেল রানা পুলিশের কনস্টেবল পদে নীলফামারী সদর থানায় চাকরি করতো। গত এক বছর আগে তার বদলি হয় ঢাকায়। কিন্তু মানসিকভাবে অসুস্থ থাকায় সে ঢাকায় যোগদান করেনি।

কিছুদিন আগে বাবা-মা মিলে সোহেল রানাকে ঢাকায় চিকিৎসা করাতে যান। সেখান থেকে গত মঙ্গলবার সকালে তারা দিনাজপুরে ফিরে আসেন।

বাড়িতে এসে মঙ্গলবার রাতেই বাবা খতিবউদ্দিনের সাথে ছেলে সোহেল রানার কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ছেলে সোহেল রানা কাঠের একটি লাঠি দিয়ে সজোরে বাবার ঘাড়ে আঘাত করে। এতে বাবা খতিবউদ্দিন গুরুতর আহত হলে দ্রুত তাকে দিনাজপুর এম. আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১১টায় খতিবউদ্দিনের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় খতিবউদ্দিনের স্ত্রী রাশেদা বেগম বাদী হয়ে ছেলে সোহেল রানার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়েল করেন। মামলার পর রাতেই পুলিশ ঘাতক ছেলে সোহেল রানাকে গ্রেফতার করে।

দিনাজপুর কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ রেদওয়ানুর রহিম বিষয়টি স্বীকার করে জানান, মানসিকভাবে অসুস্থ থাকায় সে ঢাকায় যোগদান করেনি। পরিবার থেকে তার চিকিৎসা চলছিল, কিন্তু এরই মধ্যেই এঘটনা ঘটে যায়। সূত্র : পরিবর্তন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত