প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দানের পরিবর্তে মৃত্যু কখনোই কাম্য নয়

সাতকানিয়াতে ভীড়ের চাপে পড়ে ১০ জন শিশু ও নারীর মৃত্যু হয়েছে। এটা দেশের ১ম কোন ঘটনা নয়। এর আগেও আমরা দেখেছি দেশের বিভিন্ন জায়গায়, বিশেষ করে রমজান ঈদে যাকাত, ইফতার বা যাকাতের কাপড়, আবার কোরবানীর ঈদের মাংস বিতরণের সময় ভিড়ের চাপায় পৃষ্ট হয়ে মৃত্যুর ঘটনা আরো অনেক ঘটেছে। আমাদের নতুন সময়ের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, এখন আমাদের দেশে অর্থ বিত্তশালী লোক যারা আছে, তারা মাঝে মধ্যে নিজেদের নাম কামানোর জন্যে যাকাত বা বিভিন্ন বস্তু গরীবদের মধ্যে বিতরণ করে থাকেন। ধর্মীয় বা সামাজিক দৃষ্টিকোণ থেকে এটা নেকীর কাজ হলেও সামাজিক মর্যাদায় তিনি দানশীল ব্যক্তি হিসেবেই পরিচিতি লাভ করছে।  সমাজে প্রচারও হচ্ছে যে তারা দানশীল ব্যক্তি। আর গরীব লোক যারা আছে তাদের ধারণা যে, সারা মাস কাজ করে যে ৫০০ টাকা পাওয়া যায়, আর একদিন সময় নষ্ট হলেও ওইখানে গেলে যাকাতের কাপড়সহ টাকাও কিছু পাবে।

দানের ব্যাপারে তিনি আরো বলেন, যারা দান করবেন, তারা যেন জনসম্মুখে করবেন। নিরাপত্তার ব্যবস্থা ১০০ ভাগ নিশ্চিত না করে দান করবেন না। দ্বিতীয়ত, এই ধরনের কাজ করার মধ্য দিয়ে যদি কেউ মারা যায়, তাহলে এর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার পক্ষ মত দেন তিনি। তিনি বলেন, এই মৃত্যু আসলে অবহেলার কারণে ঘটে। মৃত্যু অনেকভাবেই ঘটতে পারে, একটা ইচ্ছাকৃত ঘটনা আবার অন্যটি অনিচ্ছাকৃত। উপকার করা ভালো; কিন্তু এই উপকারই যেন কারো মৃত্যুর কারণ না হয়। যা আমাদের কারোই কাম্য নয়। তাই বলছি যে, যারাই গরীবদের দান করবেন, তারা অন্তত তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পরেই দান করবেন। এমনটাই প্রত্যাশা করেন সাবেক এই আইজিপি।

পরিচিতি : সাবেক আইজিপি/তামত গ্রহণ : নৌশিন আহম্মেদ মনিরা/সম্পাদনা : জাফরুল আলম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত