প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পারিবারিক বন্ধনের শিথিলতায় বাড়ছে সমস্যা

সাজিয়া আক্তার : একান্নবর্তী পরিবারগুলো ভাঙতে শুরু করেছে অনেক আগেই। একটা সময় প্রতিটি মহল্লায় এমন পরিবারের দেখা মিললেও এখন তা অনেকটাই বিরল। তবে আজও ধরে রেখেছেন সেই ধারা। তাদের বিশ্বাস একসাথে থাকা মানসিকতা দৃঢ় করবে সমাজব্যবস্থা, দূর হবে সামাজিক সমস্যা।

জীবনের শেষপ্রান্তে এসে পরিবার বেষ্টিত সুর আর গানের হারিয়ে যাওয়া নিয়ে বিচলিত হন আরামবাগের ডা. আব্দুল অহাব। বয়স ৯০ পেরোলেও ছেলে মেয়ের ভালোবাসা আর নাতিনাতনির আবদারে বার্ধক্য ঠায় নেয়নি তার মনে।

আরামবাগের ডা. অহাব পরিবারের বসবাস শুরু সেই ১৯৬৭ সালে। ৩ মেয়ে ১ ছেলের বিয়ে, সন্তানলাভ সবকিছুই এই পরিবারে। সুযোগ পেলেই ছাদে বসে তিন প্রজন্মের আড্ডা। মায়াহীন যান্ত্রিক এইশহরে ছোট এই ছাদে ধরাদেয় প্রজন্মের মেল বন্ধন।

ডা. আব্দুল উহাবলেন, পরিবারের সবাই একসাথে থাকলে আমার অনেক আনন্দ হয়, আমার মনে হয় ডানা বিহীন আকাশে উড়া। ঈদের পর সবাই একসাথে ছাদের মধ্যে আড্ডা দেয়, একসাথে অনুষ্ঠান করি। সবার মাঝে অন্যরকম ভালোবাসা কাজ করে। নতুন প্রজন্মের কাছে এমন পরিবেশ স্বপ্নের মত।

ডা. আব্দুল উহাবের পরিবারের সদস্যরা বলে, আমার পরিবারে ৪টা মা, আমাকে সবাই আদর করে এবং শাসন ও করে সবাই এক সাথেই। আমার পরিবারের যে ভালোবাসা তা অন্য অনেক পরিবারেই নেই।

এযুগে একান্নবর্তী পরিবার তেমন চোখে না পরলেও ডা. অহাবের পরিবার কিকরে যেনো সব গুছিয়ে নিয়েছে নিজেদের মত করে। বউ-শ্বাশুরি, জামাই-শশুর এই সম্পর্কগুলো গৌন হয়ে যায় প্রতি পদেপদে। সবাই মিলে হয়ে উঠে একটি পরিবার।
ডা. আব্দুল উহাবের পরিবারের সদস্যরা বলে, আমাদের পরিবারে কোনো আত্মীয়-স্বজন আসলে সবাই একসাথেই সময় কাটাই। আমরা সবাই একসাথেই খাওয়া-দাওয়া করি।

সুযোগ পেলেই দাদার হাতের লাগানো গাছের সাথে পরিচয় ঘটে ডা. আব্দুল উহাবের পরিবারের ছোট সদস্যদের। নতুন প্রজন্ম যেখানে অবাক হয়ে তাকিয়ে থাকে। স্বাভাবিক ভাবে কোনো উৎসব-বা পূজা পার্বনে বড় পরিবারগুলো একসাথে হয় তখন হয়তো এরকম সবাই একসাথে হয়। কিন্তু এই পরিবারটি ভিন্ন, এই পরিবারে প্রতিদিনি উৎসব, কেননা এতোগুলো মানুষ একসাথে থাকে বসবাস করাছেন অনেকগুলো বছর ধরে। বিভিন্ন সময় নিজেদের সুখ- দুঃখ ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন নিজেদের মাঝে। এবং তারা প্রত্যাশা করছেন প্রতিটি পরিবারের মাঝে ছড়িয়ে থাকবে সুখের আবেস। প্রিয়জন যেনো মানুষের কাছেই থাকে।

সূত্র: যমুনা টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ