প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভিসির বাসায় হামলায় ঢাকা আলিয়ার ছাত্র

ডেস্ক রিপোর্ট :  কোটাবিরোধী আন্দোলনের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসার এক ছাত্রসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তাররা হলেন- মো. মাসুদ আলম ওরফে মাসুদ (২৫), মো. রাকিবুল হাসান ওরফে রাকিব (২৬), মো. আলী হোসেন শেখ ওরফে আলী (২৮) ও আবু সাইদ ফজলে রাব্বী ওরফে সিয়াম (২০)।

রোববার ঢাকার বিভিন্ন জায়গা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য জানান।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এদের মধ্যে কেউ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নয়। তাদের দুজনের কাছ থেকে ওই রাতে উপাচার্যের বাসা থেকে লুট হওয়া দুটি মোবাইল পাওয়া গেছে।

মাসুদ ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসার ছাত্র জানিয়ে গোয়েন্দা কর্মকর্তা দেবদাস বলেন, বাকি তিনজন এখন লেখাপড়া করেন না।

ভেঙে ফেলা হয় উপাচার্যের বাসভবনের আসবাবপত্র ভেঙে ফেলা হয় উপাচার্যের বাসভবনের আসবাবপত্র সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা গত ৯ এপ্রিল শাহবাগে সড়ক অবরোধ করলে রাতে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। এরপর ক্যাম্পাসের ভিতরে গিয়ে রাতভর পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ চালিয়ে যায় আন্দোলনকারীরা।

এরমধ্যে মধ্যরাতে মুখোশধারী একদল ব্যক্তি লাঠিসোটা নিয়ে উপাচার্যের বাসভবনে হামলা চালিয়ে ব্যাপকভাবে ভাংচুর করে। পরদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা কর্মকর্তা এস এম কামরুল আহ্সান শাহবাগ থানায় মামলা দায়ের করেন। হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকেও কয়েকটি মামলা করা হয়।

মামলায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করায় এ নিয়ে আতঙ্কে ছিলেন কোটাবিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া শিক্ষার্থীরা।  এই চারজন গ্রেপ্তারে সন্তোষ জানিয়েছেন আন্দোলনকারী ‘ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’র আহ্বায়ক হাসান আল মামুন।

তিনি একটি অনলাইন গণমাধ্যমকে বলেন, “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে যারা আন্দোলন করেছে, তারা সবাই ঢাবির ছাত্র। উপাচার্যের বাসভবনে হামলার জন্য যে চারজনকে আটক করা হয়েছে বলে খবর পেয়েছি, তাদের কেউই ঢাবির ছাত্র না।

“তারা বহিরাগত- এর থেকে প্রমাণিত হয়, হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় ঢাবির শিক্ষার্থীদের কোনো অংশগ্রহণ ছিল না।”

চারজনকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে জানতে চাইলে শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান বলেন, এ বিষয়ে তিনি অবগত নন।

উৎসঃ বিডিনিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত