প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংরক্ষিত প্রাকৃতিক অঞ্চলসমূহ নিয়ে উইকিপিডিয়ার ছবি প্রতিযোগিতা

ফাহিম ফয়সাল : বিভিন্ন দেশের সংরক্ষিত অঞ্চলসমূহের ছবি তোলার প্রতিযোগিতা ‘উইকি লাভস আর্থ ২০১৮’ শুরু ১ মে থেকে। চলবে ৩১ মে পর্যন্ত। বাংলাদেশে এই প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করছে উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ এবং সহযোগিতা করছে বাংলা উইকিপিডিয়ার স্বেচ্ছাসেবকগণ।

উইকি লাভস আর্থ (ডব্লিউএলই) একটি আন্তর্জাতিক ছবি প্রতিযোগিতা যা প্রতি বছর মে মাসে বিশ্বব্যাপী উইকিমিডিয়ার চ্যাপ্টার, দল ও স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকদের দ্বারা আয়োজন করা হয়। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীগণ নিজ নিজ দেশের প্রাকৃতিক সংরতি অঞ্চলসমূহের ছবি উইকিমিডিয়া কমন্সে আপলোড করে থাকে যেখান থেকে পরবর্তীতে সেগুলো বিভিন্ন ভাষার উইকিপিডিয়ার নিবন্ধসমূহে ব্যবহার করা হয়।

এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের যে কেউ অংশ নিতে পারবেন। প্রতিযোগিতা পাতায় দেয়া বাংলাদেশের সংরতি অঞ্চলের তালিকা থেকে যেকোনো সময় তোলা, যেকোনো স্থানের ছবি যত খুশি আপলোড করা যাবে পুরো মে মাস জুড়ে। প্রতিযোগিতা শেষে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দেশ থেকে প্রাপ্ত সেরা ১০টি করে ছবি থেকে আন্তর্জাতিক বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।

আন্তর্জাতিকভাবে সেরা ১০টি ছবিকে পুরস্কৃত করা হবে। প্রথম পুরস্কার বিজয়ী ২০১৯ সালে সুইডেনে অনুষ্ঠেয় উইকিপিডিয়ার বার্ষিক সম্মেলন ‘উইকিম্যানিয়ায়’ যোগ দেওয়ার সুযোগ পাবেন। এছাড়া স্থানীয় পর্যায়ে ও সতন্ত্রভাবে পুরস্কার প্রদান করা হবে।

উইকিমিডিয়া বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক ও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার সমন্বয়ক নাহিদ সুলতান জানান, ‘বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংরতি জাতীয় উদ্যান, বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যগুলোর নিবন্ধ উইকিপিডিয়াতে থাকলেও অধিকাংশেরই কোনো ছবি নেই। এ প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন দেশ থেকে প্রাপ্ত প্রাকৃতিক অঞ্চলগুলোর ছবি উইকিপিডিয়ার মাধ্যমে বিশ্বদরবারে উপস্থাপন ও সংশ্লিষ্ট ছবিসমূহের একটি স্থায়ী সংগ্রহশালা তৈরি করাই আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য।’

প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের সহ-সমন্বয়ক ও বাংলা উইকিপিডিয়ার প্রশাসক নুরুন্নবী চৌধুরী (হাছিব) বলেন, ‘দ্বিতীয় বারের মতো আমরা এ আয়োজনে অংশ নিচ্ছি। আশা করছি ধারাবাহিক ভাবে এ আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশের সংরতি এলাকাগুলোর দারুন সব ছবি আমরা উন্মুক্ত ভাবে তুলে ধরতে পারবো।’

প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ থেকে অংশগ্রহণের জন্য http://wikiloves.org/earth ঠিকানায় গিয়ে ছবি আপলোড করতে হবে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ২০১৭ সালে প্রথমবারের মত অংশ নিয়ে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের একটি ছবি ৩৬টি দেশের ১ ল ৩১ হাজার ছবির সাথে প্রতিযোগিতা করে ১১তম স্থান দখল করেছিলো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত