প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বঙ্গবন্ধুর দেওয়া বাসা থেকে উচ্ছেদ শঙ্কায় শহীদ মহিউদ্দিনের পরিবার

সজিব খান: ১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বরাদ্দ দেওয়া বাসা থেকে শহীদ মহিউদ্দিন হায়দারের পরিবারকে উচ্ছেদ করতে যাচ্ছে সরকারের গৃহায়ণ ও গণপূর্ত অধিদফতর। আজ সোমবার ইচ্ছার বিরুদ্ধে, হুমকি ও চাপের মুখে, অপমান নিয়ে ৪৫ বছরের ঠিকানা থেকে উচ্ছেদ হতে হচ্ছে পরিবারটিকে। শহীদ মহিউদ্দিনের স্ত্রীর অভিযোগ, বাড়ি ছাড়তে কিছুটা সময় চাইলেও তা দেওয়া হয়নি।

শহীদ মহিউদ্দিন হায়দারের স্ত্রী খুরশিদা হায়দার বলেন, ১৯৭৩ সালে শহীদ পরিবার হিসেবে আজিমপুর কলোনিতে বাসাটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বরাদ্দ দেন। সেই থেকে তিনি পরিবার নিয়ে বাসাটিতে থাকছেন। এখন কৌশলে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত অধিদপ্তর আদালতের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করিয়ে উচ্ছেদ করতে চাইছে। তাঁরা বাসা ছাড়তে সময় চাইলেও দেওয়া হয়নি। হুমকি ও চাপের মুখে আজ ৩০ এপ্রিল তাঁদের বাড়িটি ছাড়তে হচ্ছে।

তিনি জানান, ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে বাংলাদেশ বেতারে চাকরিও পান তিনি। ওইদিন বঙ্গবন্ধু তাকে জিজ্ঞেস করেন, “থাকবা কোথায়? বাসা আছে?”, জবাবে খুরশিদা হায়দার ‘না’-সূচক জবাব দিলে বঙ্গবন্ধু বলেন, “বাসাও পেয়ে যাবা”। ওইদিন বঙ্গবন্ধু তাকে নগদ দুই হাজার টাকাও দেন বলে জানান খুরশীদা হায়দার।

খুরশিদা হায়দার বলেন, বাংলাদেশ বেতার থেকে ২০০৭ সালে চাকরি থেকে অবসরে গেলে বাসা ছাড়ার চাপ আসতে থাকে। ২০০৮ সালে বরাদ্দ বাতিল করলে উচ্চ আদালতে রিট করি। আদালত স্টে অর্ডার দিলে বসবাস শুরু করি। সেই স্টে অর্ডার আমাদের অজ্ঞাতসারে বাতিল করা হয়েছে। ফলে বাড়ি ছাড়ার জন্য মাত্র সাত দিনের নোটিশ জারি করা হয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে দেখতে হবে। এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না।’

মহিউদ্দিন হায়দার বাংলাদেশ বেতারের রংপুর শাখায় চাকরিরত অবস্থায় ১৯৭১ সালে শহীদ হন। পরিবারটি বর্তমানে নানা হয়রানি ও দুর্দশার মাঝে পড়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ প্রার্থনা করে ব্যর্থ হয়েছে বলে জানান শহীদের সন্তানরা। সূত্র: কালের কণ্ঠ, বাংলা ট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত