প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হরে কৃষ্ণ হরে রাম শ্লোগানের মাধ্যমে আবারো প্রমাণ হলো বিএনপি একটি সাম্প্রদায়িক দল (ভিডিও)

ডেস্ক রিপোর্ট : চলতি বছরের ৫ মে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন বিএনপি সাম্প্রদায়িক শক্তির পৃষ্ঠপোষক। যার দু মাস পার হবার আগেই শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে হরে কৃষ্ণ হরে রাম শ্লোগানের মাধ্যমে বিএনপি আবারো প্রমাণ করলো, তারা একটি সাম্প্রদায়িক দল।

২২ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডনে বাংলাদেশি একটি সভায় বক্তব্য দিতে গেলে সেখানে বিএনপির যুক্তরাজ্য সভাপতি এম এ মালেকের নেতৃত্বে ‘হরে কৃষ্ণ হরে রাম- শেখ হাসিনার বাপের নাম” স্লোগান দেয় যুক্তরাজ্য বিএনপি।

এ বিষয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কঠোর আলোচনা সমালোচনার মধ্যে পড়ে বিএনপি। অজান্তা দেব রয় নামে একজন লিখেছেন, কতটা ঘৃণা মনে ও মগজে থাকলে এমনটা করা সম্ভব ভাবা যায়? তলে তলে সাম্প্রদায়িকতা পোষা বিএনপি প্রকাশ্যে এতো নির্লজ্জ্বভাবে তার সাম্প্রদায়িক রূপের প্রকাশ ঘটিয়েছে যে এরা বাংলাদেশের একটা বড় রাজনৈতিক দল ভাবতেও ঘেন্না হচ্ছে।

এসময় অজান্তা ভিডিও লাইভে এসে বলেছেন, বিএনপিতে কি হিন্দু নেই। বাংলাদেশ হিন্দু সম্প্রদায়ের ভোট কত সেটা কি বিএনপি জানে না? তাহলে বিএনপিতে গয়েশ্বর রায়, নিতাই গাঙ্গুলী এরা কারা?

এ বিষয়ে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের এক সিনিয়র নেতা বলেন, সাম্প্রদায়িকতা বিএনপির অস্তিত্বের সঙ্গে সব সময় মিশে ছিলো। এর আগে পাবনার সাঁথিয়ায় হিন্দুদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বসতবাড়িতে হামলা, নওগাঁয় চারজন সাঁওতাল কৃষককে হত্যা করা, দিনাজপুরের কান্তজির মন্দির উচ্ছেদের চেষ্টা, চিরিরবন্দরে হিন্দু উপাসনালয়ে আক্রমণ, পাবনার হেমায়েতপুরে শ্রী শ্রী অনুকূল ঠাকুরের আশ্রমের সেবায়েতকে হত্যাÑএ রকম বহু নজির বিএনপি ঘটিয়েছে। বিএনপির প্রতি অনুরোধ থাকবে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা না ছড়িয়ে দল মত নির্বিশেষে বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের কল্যাণে এগিয়ে আসুন। তবে দেখবেন, দেশের মানুষ আপনাদের সাদরে গ্রহণ করছে।

সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার উষ্কানি একটি দেশের জন্য কখনোই শুবার্তা বয়ে নিয়ে আসতে পারে না। দুর্নীতিগ্রস্থ বিএনপির এ সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার উষ্কানির ফলে দেশের মানুষের ভোট তো পাবেই না, বরং সাধারণ মানুষের মন থেকে হারিয়ে যাবে বলে মনে করছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যায়ের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিভাগের উপাচার্য।

সূত্র : বাংলা নিউজ পোস্ট

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত