প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সেতুমন্ত্রীকে নিয়ে ফেসবুকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ভুয়া ছবি পোস্ট

সজিব খান: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভুয়া ছবি পোস্ট করা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে তিনি মন্দিরে শ্রী আচার্য চন্দ্র বিদ্যাসাগর মহারাজের কাছ থেকে আশীর্বাদ নিচ্ছেন। ইতোমধ্যে ছবিটি নিয়ে ফেসবুকসহ বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচনা ও সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে ফেসবুকে ছবিটি কে বা কারা এতো বেশি ছড়িয়ে দিয়েছে যে প্রথমে ছবিটি কোন ফেসবুক আইডি থেকে পোস্ট করা হয়েছে তা কেউ বলতে পারছে না। তবে অনেক সচেতন ব্যক্তি ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

ওবায়দুল কাদেরের যে ছবিটি পোস্ট করা হয়েছে তা প্রাথমিকভাবে দেখলে বুঝার উপায় নেই যে ছবিটি সম্পূর্ণ ফটোশপের কারসাজি। ছবিটির কারিগর এতো সুক্ষভাবে ছবিটিতে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ আওয়ামী লীগের আরো দুই নেতার মাথা এমন ভাবে জুড়ে দিয়েছেন যে হয়তো যে কেউ দেখলে মনে করবে তারা ভারতে গিয়ে নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে মন্দিরে শ্রী আচার্য চন্দ্র বিদ্যাসাগর মহারাজের কাছ থেকে আশীর্বাদ নিচ্ছেন।

আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের একাধিক নেতাকর্মীর দাবি, ওবায়দুল কাদেরকে বিতর্কিত করতে এবং তার ওপর জণগনের ঘৃণা জন্মানোর বিএনপি-জামায়াত কর্তৃক এটা একটা অপচেষ্টা ছিলো। তবে ছবিটিতে মাহবুব-উল আলম হানিফের মাথা অস্বাভাবিকভাবে বড় দেখা যাওয়া অনেকেই বিষয়টা বুঝতে পেরেছেন। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের অনেকেই দোষীদের শিগ্রই খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন।

প্রকৃতপক্ষে ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবিটিতে ওবায়দুল কাদেরের মাথা জুড়ে দেওয়া লোকটি ছিলেন ভারতের মধ্য প্রদেশের মূখ মন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। এছাড়া আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফের স্থানে ছিলেন অপর আরেকজন এবং আওয়ামী লীগের  যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানকের স্থানে ছিলেন ভারতের মূখ্যমন্ত্রী মনোহার পারীকর।

এইচটিভি নিউজ থেকে সংগ্রহীত প্রকৃত ছবি।

২০১৬ সালের ১৪ অক্টোবর মধ্যপ্রদেশের হিন্দি অনলাইন পত্রিকা এইচটিটিভি নিউজে ‘আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজের কাছ থেকে নরেন্দ্র মোদির আশীর্বাদ’ এমন শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয় যেখানে বলা হয়েছে,

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তার ভোপাল অভিবাসনের সময় হাবিবগঞ্জের জৈন মন্দিরের চৈত্রমূর্তি পালন করে জৈন সন্ন্যাসী আর্চায বিদ্যাসাগর জি মহারাজের কাছ থেকে আর্শিবাদ পেয়েছিলেন। এসময় নরেন্দ্র মোদী আচার্য বিদ্যাসাগর জি মহারাজ ‘গুপ্ত মাতি’ বইয়ের গুজরাটি সংস্করণটি মুক্তি দেন। এই উপলক্ষে গোয়ার মধ্য প্রদেশের মূখ মন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান, প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহার পারীকর, অর্থমন্ত্রী শ্রী জয়ন্ত মালাইয়া এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের (স্বাধীন চার্জ) মন্ত্রী শারদ জয়ন উপস্থিত ছিলেন।

প্রকৃত সংবাদের লিঙ্ক

নিচে এইচটিভি নিউজ থেকে সংগ্রহীত আরো কয়েকটি ছবি দেয়া হলো-

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত