প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পৌরসভার ময়লায় ভরাট হচ্ছে আয়মন নদী

ডেস্ক রিপোর্ট : ৫ কোটি টাকায় এক বছর আগে ময়লা ফেলার জন্য জমি কিনেছে মুক্তাগাছা পৌরসভা। তবে সেখানে ময়লা ফেলা হয় না। ময়লা ফেলা হচ্ছে আয়মন নদীতে। এতে ক্রমেই ভরাট হচ্ছে আয়মন নদী। যেখানে সরকার নদী খনন প্রকল্পে কোটি কোটি টাকা খরচ করছে, সেখানে মুক্তাগাছা পৌরসভা ময়লা ফেলে নদী ভরাটের কাজ করছে। এর সঙ্গে মহাসড়কের পাশে হওয়ায় দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ছে পুরো এলাকায়। পথচারীদের ওই এলাকায় চলতে হয় নাকে রুমাল চেপে। পৌরসভা কর্তৃপক্ষের দায়িত্বহীনতায় পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হলেও এ বিষয়ে তাদের কোনো নজর নেই। এলাকাবাসীর আপত্তির পরও ময়লা ফেলা বন্ধ করেনি মুক্তাগাছা পৌরসভা।

মুক্তাগাছা শহরের পাশ দিয়ে ত্রিমোহিনী নতুন বাজার সংলগ্ন এলাকা দিয়ে বয়ে গেছে আয়মন নদী। এক সময় এ নদীতে পাল তোলা নৌকা চলত। এখন আর সেই অবস্থায় নেই নদীটি। অধিকাংশ এলাকায় বাঁধ দিয়ে বানানো হয়েছে পুকুর। মাটি ভরাট করে বানানো হচ্ছে ঘরবাড়ি আর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এক সময়ের উত্তাল নদী এখন মরা খালে পরিণত হয়েছে। যেটুকু বাকি ছিল এটুকুও এখন ময়লা ফেলে ভরাট করা হচ্ছে। মুক্তাগাছা পৌরসভা কর্তৃপক্ষ শহরের সব বর্জ্য ফেলছে আয়মন নদীতে। ট্রাকে প্রতিদিন বর্জ্য ফেলা হচ্ছে ময়মনসিংহ-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মুক্তাগাছার ত্রিমোহিনী নতুন বাজারের গরুরহাট সংলগ্ন এ নদীতে। মুক্তাগাছা পৌরসভা তিন বছর আগেও জলবায়ু প্রকল্পের লাখ লাখ টাকা খরচ করে নদী খননের নামে। শহরের ডৌয়াখোলা এলাকায় আয়মন নদী খননেরও কাজ করা হয় জলবায়ু প্রকল্পের আওতায়। আর সেখানে খোদ পৌরসভা কর্তৃপক্ষই ময়লা ফেলে নদী ভরাটের কাজ করছে। মহাসড়ক ঘেঁষে ময়লা ফেলায় দুর্গন্ধে ছেয়ে গেছে পুরো এলাকা। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বারবার বলার পরও পৌর কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নজরে আনেনি। অথচ এক বছর আগে প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে স্থানীয় কাজন কোটা বিলে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে তিন একর জমি অধিগ্রহণ করা হয় ময়লাখানা বানাতে। এর পর এক বছরেও ময়লা ফেলার জায়গাটি তৈরি করেনি পৌর কর্তৃপক্ষ। তাদের অবহেলার কারণে যেখানে-সেখানে পৌরসভার ময়লা ফেলা হচ্ছে।

মুক্তাগাছা পৌরসভার মেয়র শহিদুল ইসলাম শহীদ বলেন, কাজল কোটা বিল এলাকায় ময়লা ফেলার জন্য জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। টেন্ডার আহ্বান করে কিছু দিনের মধ্যেই কাজ শুরু করা হবে। এ ছাড়া আর কোথাও ময়লা ফেলার জায়গা না থাকায় আয়মন নদীর পাড়ে অস্থায়ীভাবে ময়লা ফেলা হচ্ছে।

ইউএনও সুবর্ণা সরকার বলেন, তথ্য নিয়ে জেনেছি আয়মন নদী দিয়ে এক সময় নৌকা চলত। এখন মরা খালে পরিণত হয়েছে। সূত্র : সমকাল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত