প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাধারণ মানুষের কথা অসাধারণ ভাবে তুলে ধরেছেন সৈয়দ শামসুল হক

রাজু আনোয়ার: সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক তার সর্বশেষ প্রকাশিত‘নদী কারো নয়’ উপন্যাসে ইতিহাসের খুব গভীরে ডুকে সাধারন মানুষের অনেক অসাধারন কথা লিখে গেছেন। তার লেখার মধ্যে দিয়ে আমরা বাঙালী হিসেবে নিজেকে ফিরে ফেলাম।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্রশালী প্রদর্শনী কক্ষে সৈয়দ সামসুল হকের সর্বশেষ প্রকাশিত দুটি গ্রন্থ ‘নদী কারো নয়’, ও ‘ উৎকট তন্দ্রার নিচে’ গ্রন্থের পাঠ উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, সৈয়দ শামসুল হকের সাথে আমার চমৎকার সময় কেটেছে। তার গান, কাব্য, নাটক অসাধারন জনপ্রিয়। চলাফেরায় এত শৃংখলা জীবনে আমি খুব কম মানুষকে দেখেছি।

ইমেরির্টাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, ৪৭ এর দেশ ভাগ নিয়ে ভারত ও পাকিস্থানে কিছু লেখালেখি হলেও বাংলাদেশে তেমনি কিছুই রচিত হয়নি। সেখানে এটি ‘নদী কারো নয়’ একটি উল্লেখযোগ্য প্রয়াস। তিনি এর মূলে যেতে চেয়েছেন সেজন্য ৭০ বছর আগের ট্র্যাজেডি নিয়ে উপন্যাস রচনার প্রয়াস পেয়েছেন।

প্রাবন্ধিক, অনুবাদক ও জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরী বলেন, তার সর্বশেষ লেখা ‘নদী কারো নয়’ উপন্যাসটি ৪৭ সালের দেশ বিভাগকে কেন্দ্র করে লেখা। দেশ ভাগের কারনে নদীটি ভাগ হয়ে যায়। দেশ বিভাগের ইতিহাস ছাড়াও অসংখ্য মানুষের ব্যাক্তিগত উপাখ্যান বইটিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

আনোয়ারা সৈয়দ হক বলেন, সারাটি জীবন এ মানুষটিকে আমি তার প্রতিটি বন্ধুর জন্য হয় কবিতা নয় গল্প লিখতে দেখেছি। যতই ব্যস্ত থাকুন তিনি তার কোন বন্ধুকে বিনা শ্রদ্ধায় পৃথিবীতে রেখে যাননি।

অন্য প্রকাশের আয়োজনে এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হাসনাত আবদুল হাই। আলোচনা আরো অংশ নেন মফিদুল হক, প্রকাশক মাজাহরুল ইসলাম, কবি সাজ্জাদ শরীফ প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত