প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টেকনাফে শরনার্থী ক্যাম্পে রোহিঙ্গার ছুরিকাঘাতে গর্ভবর্তী নারী খুন

ফরহাদ আমিন,টেকনাফ(কক্সবাজার): কক্সবাজারের টেকনাফ নয়াপাড়া শরনার্থী ক্যাম্পে বাকবিতন্ডার জেরে ছুরিকাঘাতে রোহিঙ্গা নারী খুনের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় জড়িত ৬ রোহিঙ্গকে আটক করেছে পুলিশ। ২৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে নয়াপাড়া শরানার্থী (রেজিষ্ট্রার্ড) ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত হ্নীলা নয়াপাড়া ক্যাম্পের ৭৫৯/১ নং শেডের ডি-ব্লকের ২৯২১৭ এমআরসি ধারী মৃত কালা মিয়ার ছেলে ছৈয়দ আহমদ(৬৫), একই ক্যাম্পের ছৈয়দ আহমদের ছেলে আবুল মাছন(১৮), ২৭/৬ নং শেডের ই-ব্লকের ২৮৪৮৫ এমআরসি ধারী ছালেহ আহমদের ছেলে মো. ইউছুফ(২২) ও সহোদর মো. ইব্রাহীম(২৫), ছালেহ আহমদ (৬২),৭৫৯/১ নং শেডের ডি-ব্লকের ৩৯২১৭ এমআরসি ধারী ছৈয়দ আহমদেও স্ত্রী দিলবাহার(৪০) কে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আটক করে।

নিহত রোহিঙ্গা নারী হচ্ছে নয়াপাড়া শরনার্থী ক্যাম্পের ৭৩২/৭ নং শেডের ডি-ব্লকের ৩৩৩৫ এমআরসি ধারী মো. ইলিয়াছের স্ত্রী ৪ মাসের অন্তস্বত্ত্বা আনছার বেগম (৪০)। এ ঘটনায় নিহত আনছার বেগমের পিতা মকবুল আহমদ(৬৫) গুরুতর আহত হয়ে মৃত্যু সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নয়াপাড়া শরনার্থী ক্যাম্পে আনছার বেগমের স্বামী ইলিয়াছের দোকানের সামনে কবিরাজী ঔষধ বিক্রয়কে কেন্দ্র করে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডার জেরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনার একপর্যায়ে আনছার বেগমকে ছুরিকাঘাত করা হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পথিমধ্যেই মারা যান।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়া জানান, নিহত আনছার বেগমের লাশ উদ্ধার করে সুরুতহাল তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত