প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজনীতি ও চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে ‘কাস্টিং কাউচ’ ঘটতেই পারে : শত্রুঘœ সিনহা

ইমরুল শাহেদ : মুম্বাই চলচ্চিত্রের খ্যাতিমান কোরিওগ্রাফার সরোজ খান এবং উর্ধ্বতন কংগ্রেস নেতা রেনুকা চৌধুরীর পর এবার রাজনীতি ও চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে ‘কার্স্টিং কাউচ ’ নিয়ে কথা বলেছেন অভিনেতা-রাজনীতিবিদ শত্রুঘœ সিনহা। তিনি এই বিষয়টি অনুমোদন না করলেও এর বাস্তবতাকে প্রত্যাখানও করেন নি।

তিনি বলেন, ‘সরোজ খান বা রেনুকা চৌধুরী কিছু ভুল বলেন নি। রাজনীতি এবং বিনোদনের ক্ষেত্রে দেওয়া-নেওয়া হয়। জীবনে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে এটা একটা পুরনো ও পরীক্ষিত নিয়ম। বলা হয়, ‘তুমি আমাকে খুশি কর, আমিও তোমাকে খুশি করব।’

একটি বার্তা সংস্থাকে শত্রুঘœ সিনহা বলেছেন, ‘এটা ঘটে আসছে স্মরণাতীত কাল থেকেই। এর মধ্যে অপ্রত্যাশিত কিছু নেই।’
সরোজ খানকে সমর্থন করে তিনি বলেন, ‘রেখা, মাধুরী দিক্ষীত বা সম্প্রতি বিদায় নেওয়া শ্রীদেবীর ক্যারিয়ার তৈরির ক্ষেত্রে সরোজ খানের অসামান্য অবদান রয়েছে। সরোজ খান নিজের যোগ্যতা বলেই একজন খ্যাতিমান মানুষ।’ শত্রুঘœ বলেন, ‘সরোজ মাঝে-মধ্যে নিজের অন্তর থেকেই কথা বলেন। যদি তিনি বলে থাকেন যে, বলিউডে মেয়েদেরকে আপোস করতে হয়, সেটা তিনি জেনেই বলেছেন। কারণ তিনি জানেন এখন কি ঘটনা ঘটছে।’

সিনহা নিজেও কাস্টিং কাউচদের দৌরাত্ম্যকে অস্বীকার করেননি। তিনি বলেন, ‘আমি পুরোপুরিভাবেই সরোজ এবং রেনুকার সঙ্গে একমত। আমি জানি চলচ্চিত্রে কাজ পাওয়ার জন্য মেয়েরা কতোটা আপোস করে।’

তিনি বলেন, ‘রাজনীতির ক্ষেত্রে কাস্টিং কাউচকে ভোট-কাস্টিং কাউচ বলাই ঠিক হবে। শোনা যায় উচ্চাকাঙ্খী তরুণীরাই সিনিয়রদের যৌন সম্পর্কের প্রস্তাব দিয়ে থাকেন এবং তারা সেটা গ্রহণ করেন। আমি বলছি না যে, এটা সঠিক। এক্ষেত্রে আমি কখনোই আপস করব না। কিন্তু আমাদের চারপাশের বাস্তবতা থেকে তো চোখও ফিরিয়ে রাখতে পারি না। সত্য বলার জন্য সরোজ খানকে নিন্দা করবেন না। নিন্দা তাদেরকেই করা উচিত যারা ছেলেমেয়েদের আপস করতে বাধ্য করেন।’ ইয়ন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত