প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মেঘ দেখলেই বাঁজে ছুটির ঘন্টা

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল: স্কুল ভবন ঝুঁকিপূর্ণ তাই শিক্ষার্থীদের সারাবছরই পাঠদান করানো হচ্ছে খোলা আকাশের নিচে। প্রখর রোদেই শিক্ষার্থীরা নিয়মিত ক্লাস করলেও আকাশে মেঘ দেখলেই বিদ্যালয় ছুটি দেয়া হয়।

ঘটনাটি জেলাল বাবুগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ ভুতেরদিয়া (নতুনচর) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০০৩ সালে স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর স্থানীয়দের সহযোগিতায় বাঁশের খুঁটি ও ঢেউটিনের ছাউনি দিয়ে ঘর নির্মাণ করে তার ভেতরে ক্লাশ হতো। পরে ২০১৩ সালে জাতীয়করণ হওয়ার পরে ওই ঘরেই শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। ২০১৫ সালে কালবৈশাখী ঝড়ে টিনের ঘরটি ভেঙে যায়। এতে ছাত্র-ছাত্রীদের ক্লাস নেয়ার অনুপযোগী হয়ে পরে। পরে দীর্ঘদিন বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক মো. নুরুল ইসলামের বাড়ির উঠানে ক্লাশ নেয়া হলেও গত কয়েক মাস থেকে স্কুলের সামনে খোলা মাঠে পাঠদান কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক মো. নুরুল ইসলাম বলেন, বিদ্যালয়ের একমাত্র টিনের ঘরটি বন্যায় ভেঙে যাওয়ায় ওখানে শিক্ষার্থীদের ক্লাস করানো যাচ্ছেনা। বিকল্প ভবন না থাকায় শিক্ষার্থীদের নিয়ে খোলা মাঠে শিক্ষা কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে।

ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, উপজেলার বিভিন্ন স্কুলে নতুন ভবন নির্মাণ করা হলেও দক্ষিণ ভুতেরদিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের চাহিদা একাধিকবার সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো সত্বেও এখনও তা আলোর মুখ দেখেনি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কেএম তোফাজ্জল হোসেন জানান, ওই স্কুলের যে টিনের ঘরটি রয়েছে তা শিক্ষার্থীদের পাঠদানের রুম হিসেবে অনেক আগেই অনুপযোগী হয়ে গেছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে বিদ্যালয়টির নতুন ভবন নির্মাণের জন্য একাধিকবার প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। খুব শীঘ্রই নতুন ভবন নির্মাণের বরাদ্দ আসলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দক্ষিণ ভুতেরদিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভবন নির্মানের কাজ আগেভাগেই করা হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত