প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সুনামগঞ্জের হাওরে অপ্রয়োজনীয় বাঁধ নির্মাণের অভিযোগ

আবু সাঈদ ফাহিম: নির্ধারিত সময়ের পরে হলেও সুনামগঞ্জের হাওরে শেষ হয়েছে বাঁধ নির্মাণ কাজ। ফলে এবার বন্যায় ফসলহানির আশঙ্কা কমেছে। কোথাও কোথাও অপ্রয়োজনীয় বাঁধ নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, স্থায়ী পাকা সড়কের ভেতরে ও বাইরে অপ্রয়োজনীয় এসব বাঁধ নির্মাণ করে বরাদ্দের টাকা লুটপাট হচ্ছে।

সুনামগঞ্জের দু’লাখ ২৪ হাজার হেক্টর জমির বোরো ফসল রক্ষায় জেলার বিভিন্ন হাওরে ৯শ ৬৪টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

গেল বছর আগাম বন্যা আর নির্ধারিত সময়ে বাঁধের কাজ শেষ না হওয়ায়, স্রোতের তোড়ে ভেসে যায় বোরো ফসল। এবার সে চিত্র নেই। এতে বড় ভূমিকা ছিলো অনুকূল আবহাওয়া আর সময়মতো অর্থ বরাদ্দ পাওয়ায় প্রায় ১৪’শ কিলোমিটার বাঁধের কাজ শেষ হওয়া। তবে অভিযোগ আছে কোথাও কোথাও অপ্রয়োজনীয় বাঁধ নির্মাণের। ফসল রক্ষা নয়, বরং এক্ষেত্রে প্রাধান্য পেয়েছে ব্যক্তিস্বার্থ। যেমন, জামালগঞ্জ উপজেলার মুচিবাড়ি খাল। অন্যান্য বছর এই খালের উপর বাঁধ না দিলেও, দেয়া হয়েছে এবার। দেখার হাওরের বাঁধ এপার-ওপার দুপাশেই ধান ক্ষেত। এমন একাধিক অভিযোগের বিষয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন ভুক্তভোগী কৃষকরা। যদিও এসব অভিযোগ মানতে নারাজ বাঁধ নির্মাণে গঠিত পিআইসি কমিটির প্রধানরা।

নীতিমালা অনুযায়ী হাওরের কৃষকের সঙ্গে আলোচনা করে প্রকল্প গ্রহণের কথা থাকলেও অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সেই নিয়ম তোয়াক্কা করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছে কৃষক।

অপ্রয়োজনীয় বাঁধ নির্মাণে অভিযোগ তদন্ত চলছে বলে জানান জেলা প্রশাসক। আর প্রতিমন্ত্রীর দাবি এবার বাঁধ নির্মাণে আন্তরিকতার এতটুকু ঘাটতি ছিলনা সরকারের। সুত্র: চ্যানেল ২৪, চ্যানেল আই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত