প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পানি সম্পদের সৌহার্দ্যপূর্ণ অংশীদারিত্বই সহযোগিতার সোনালি চাবি : তথ্যমন্ত্রী

রফিক আহমেদ : তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, পানি সম্পদের সৌহার্দ্যপূর্ণ অংশীদারিত্ব ও সামষ্টিক ব্যবহারই আঞ্চলিক সহযোগিতার সোনালি চাবি। বঙ্গোপসাগরের তীরে ‘দুঃখের পানি’কে ‘আশার পানি’তে পরিণত করার এখনই সময়। মন্ত্রী মঙ্গলবার ভারতের সিকিম প্রদেশের গ্যাংটকে ‘ইন্টিগ্রেটিং বিমসটেক ২০১৮’ সম্মেলনে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্যে একথা বলেছেন বলে বুধবার ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান হয়, দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সাত রাষ্ট্রের আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা বিমসটেক’কে আরো সংহত ও কার্যকর করার লক্ষ্যে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্স (আইসিসি) আয়োজিত এ সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন সিকিমের পর্যটনমন্ত্রী ভীম প্রসাদ ধাঙ্গেল।

হাসানুল হক ইনু বলেন, বঙ্গোপসাগরের অববাহিকা জুড়ে সহ¯্রাধিক নদ-নদী প্রবাহিত। এসব নদ-নদী আমাদের সম্পদ হলেও প্রায়শই দুঃখের কারণ ঘটায়। আর এখন দু’দশকে পরিণত হয়ে ওঠা ‘বিমসটেক’ সহযোগিতায় সেই ‘দুঃখের পানি’কে ‘আশার পানি’তে পরিণত করার সময় এসেছে।

তিনি বলেন, জোরালো আঞ্চলিক সহযোগিতাই বিশ্বায়নের যুগে টিকে থাকার হাতিয়ার। আর আমরা জীবনসঙ্গী পাল্টাতে পারলেও প্রতিবেশী পাল্টাতে পারি না। তাই প্রতিবেশীর সঙ্গে শান্তিতে বসবাস করতে শেখাই উত্তম।

উদ্বোধনী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন আইসিসি’র অ্যাক্ট ইস্ট কাউন্সিল চেয়ারম্যান রজত নাগ। বক্তব্য রাখেন বিমসটেক সচিবালয়ের সেক্রেটারি জেনারেল রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম, আইসিসিবি সভাপতি মতলুব আহমাদ, শ্রীলংকার প্রফেসর এমিরেটাস ড. গামিনী কিরাওয়েলা এবং ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব পিযুষ শ্রীবাস্তব প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ