প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোনো পার্বতীর সঙ্গে শরৎচন্দ্রের দেখা হয়নি, আমার হচ্ছে : পপি

ইমরুল শাহেদ : কালজয়ী কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের দেবদাস উপন্যাসের পার্বতী চরিত্রে অভিনয় করছেন একাধিক ছবিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া অভিনেত্রী পপি। ভারত উপমহাদেশে এ পর্যন্ত দেবদাস উপন্যাসটি বিভিন্ন ভাষায় চিত্রায়িত হয়েছে ২২ বার। বিভিন্ন ভাষাভাষীর ২২ জন অভিনেত্রী পার্বতী চরিত্রটিতে অভিনয় করেছেন। পপি তাহলে নতুন কি করছেন বা তিনি তাদের কাউকে অনুসরণ করছেন কিনা এসব প্রশ্নগুলো স্বাভাবিকভাবেই সামেনে এসে যায়।

এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে পপি কোনো প্রকার দ্বিধা না করেই বলেন, এখানে কাউকে অনুসরণ করার কোনো প্রকার সুযোগ নেই। কারণ পার্বতী চরিত্রে ভিন্ন ভিন্ন ২২ জন অভিনেত্রী অভিনয় করলেও তারা প্রত্যেকেই হয়ে উঠেছেন উপন্যাসের পার্বতী। কিন্তু তাদের কারো সঙ্গে লেখকের দেখা হয়নি। আমি উপন্যাসের পার্বতী হলেও আমার চরিত্রটির সঙ্গে লেখকের দেখা হচ্ছে। আমি তার সঙ্গে কথা বলতে পারছি। তার কাছ থেকে জেনে নিতে পারছি আমাকে কেন সৃষ্টি করা হয়েছে।

পপি বলেন, ‘চরিত্রের সৃজনশীলতা যদিও একটি আপেক্ষিক বিষয় তবুও আমি নিজেকে এর মধ্যে অন্তর্লীন করার চেষ্টা করছি। তবে লেখকের সঙ্গে আমি কথা বলতে পারছি, এটাই আমার কাছে নতুন প্রাপ্তি।’

তিনি বলেন, ছবিটিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার সময় ভাবিনি আমি খ্যাতিমানদের মধ্যে হারিয়ে যাব কিনা। কারণ লেখকের সঙ্গে কথা বলতে পারব সেটাই আমার কাছে নতুন বিষয়। আর সেটাই আমার অনুপ্রেরণা।’
রোববার এফডিসির তিন নাম্বার ফ্লোরে শুরু হয়েছে ইভেন্টস প্লাস প্রযোজনায় এবং আরিফুজ্জামান আরিফ পরিচালনায় কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র ছবির চিত্রায়নের কাজ। প্রথম দিনের শুটিংয়ে অংশগ্রহণ করেন পপি ও গাজী রাকায়েত। শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন গাজী রাকায়েত। গেট-আপ এবং সাজ-সজ্জা তার চেহারার আদলে শরতের বৈশিষ্ট্য অনেকটাই ফুটে উঠেছে। পরিচালক দু’জনের চেহারা নিয়েই একটি বিল বোর্ড তৈরি করেছেন।

গাজী রাকায়েত বলেন, ‘ছবিটিতে কাজ করতে আমার খুবই ভালো লাগছে। কিন্তু একটু ভয়ে আছি, আমি কতোটা সফল হতে পারব।’ শরৎচন্দ্র চট্টপাধ্যায় বিভিন্ন উপন্যাসে সৃষ্টি করেছেন বিখ্যাত অনেক চরিত্র। এসব চরিত্রের মধ্যে লুকিয়ে আছে নানা রহস্য, নান্দনিকতা, গভীরতর স্নিগ্ধ আবেদন-নিবেদন, প্রেম ও বিষাদ। তবে নানা ছকে চরিত্রগুলো উপস্থাপন করতে গিয়ে কোথাও বা কখনো চরিত্রের স্রষ্টা হিসেবে শরৎচন্দ্র নিজেও যেন নিজেকে কোন একজালে বেঁধেছেন, অপরাধী হয়েছেন কোনো কোনো চরিত্রের কাছে। দেবদাস পার্বতী, রাজলক্ষ্মী, ইন্দ্রনাথ, গহর, ন্যয়রতœ মশাই, অচলা, বড়দিদির কাছে প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছেন তিনি। এমন একটি ভাবনা থেকেই ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ শীর্ষক চিত্রনাট্যটির আখ্যানভাগ।

এই ছবিটির বিভিন্ন চরিত্রে রয়েছেন, দেবদাস চরিত্রে ফেরদৌস, মনোরমা চরিত্রে উপস্থাপিকা আতিয়া খান কেয়া, শ্রীকান্ত উপন্যাসের রাজলক্ষ্মী চরিত্রে মৌসুমি হামিদ, গহর চরিত্রে আনিসুর রহমান মিলন, কমল লতা চরিত্রে নবাগত প্রকৃতি, ইন্দ্রনাথ চরিত্রে রাকায়েত রাব্বি; গৃহদাহের অচলা চরিত্রে তমা মির্জা, মহিম চরিত্রে নিরব, সুরেশ চরিত্রে শিশির আহমেদ এবং বড়দিদি উপন্যাসের বড়দিদি মাধবী দেবী চরিত্রে মঞ্চ অভিনেত্রী তামান্না সম্পা। একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করছেন রামেন্দু মজুমদার। ছবিটির জন্য ছয়টি গান লিখেছেন মো. রফিকুজ্জামান এবং সঙ্গীত পরিচালনা করছেন সঙ্গীত পরিচালক আলী আকরাম শুভ। চিত্রগ্রহণ করছেন চিত্রগ্রাহক তপন আহমেদ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ