প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কেসিসি নির্বাচন
প্রতীক পেয়ে মেয়র প্রার্থীদের প্রচারণা শুরু

শরীফা খাতুন শিউলী, খুলনা: খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিস) নির্বাচন উপলক্ষে ৫ মেয়র প্রার্থীর প্রতীক বরাদ্দ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় প্রথমে আওয়ামী লীগ মনোনিত মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেককে নৌকা প্রতীক দেওয়া হয়েছে। পরে বিএনপি মনোনিত মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জুকে ধানের শীষ প্রতীক দেওয়া হয়।

এরপর জাতীয় পার্টি মনোনীত শফিকুর রহমানকে লাঙ্গল, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত অধ্যক্ষ মাওলানা মুজ্জাম্মিল হককে হাত পাখা ও বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি মনোনীত দলের মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বাবুকে কাস্তে প্রতীক দেওয়া হয়েছে।

আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী মেয়র প্রার্থীদের হাতে প্রতীক তুলে দেন।

মেয়র প্রার্থীদের জন্য নির্ধারিত প্রতীক দেওয়ার পর সংরক্ষিত কাউন্সিলর ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে তাদের পছন্দের প্রতীক দেওয়া হচ্ছে।

নজরুল ইসলাম মঞ্জু নির্বাচনী প্রতীক গ্রহন করে দলীয় কার্যালয়ে সর্বস্তরের নেতাকর্মী ও ২০ দলীয় জোটের নেতাদের উপস্থিতিতে দোয়া মোনাজাতের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন।

দোয়া শেষে মহানগরীর প্রানকেন্দ্রে ও মূল শহরে ধানের শীষ প্রতীকের লিফলেট বিতরনের মাধ্যমে ভোটারদের কাছে ভোট প্রার্থনা করেন মঞ্জু। এসময় তার সাথে ২০ দলীয় জোটের নেতা-কর্মীরা ছিলেন।

মঙ্গলবার ফজরের নামাজ আদায়ের পর টুটপাড়া কবরস্থানে মঞ্জু বাবা মায়ের কবর জিয়ারত করেন।

বেলা সাড়ে ১১টায় খুলনা প্রেসক্লাবে নৌকার জয় বাংলার জয় এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেকের নির্বাচনী ওয়েবসাইট উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু হয়।

খুলনা মাহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগ পক্ষ থেকে ওয়েবসাইট উদ্বোধনের আয়োজন করা হয়।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় নির্বাচন কমিশন থেকে নৌকা প্রতীক বরাদ্দ নেন মেয়রপ্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক। প্রতীক পাওয়ার পর তিনি মহানগরীর পিকচার প্যালেস মোড় থেকে নৌকা প্রতীকের লিফলেট বিতরণ ও নগরবাসীর সাথে কুশলাদি বিনিময় করেন।

সেখান থেকে এসে তিনি মহানগরীর দলীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

রোববার বাগেরহাটের হয়রত খাজা খানজাহান আলী (রহ:) এর মাজার জিয়ারতের মধ্যদিয়ে মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক তার নির্বাচনী কাজ শুরু করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত