প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কেউ যদি প্রমাণ করতে পারে আমি টাকা খেয়েছি তাহলে আমি নিজেই আমার ফাঁসি চাইব

কোনদিনও এত বড় আন্দোলনের নেতৃত্ব দেওয়ার যোগ্যতা আমার মত ক্ষুদ্র হাসান আল মামুনের ছিল না। গ্রামের খেলা, ভলিবল খেলা, দৌড়, দীর্ঘলম্ফ এগুলোতে ছিলাম প্রথম সারিতে। জেলা দলেরও ছিলাম একজন সদস্য। মুজিবুল আলম হিরা মামা যখন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তখনও বিভিন্ন সময় মিছিলে গিয়েছি, সর্বশেষ যখন ফয়সাল আহম্মেদ রনি ভাই, ২০১১ সালে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হয়েছিলেন, সেদিন শহরে বন্ধুদের সাথে মিছিলে ছিলাম আমি, নৌকার মিছিলে স্লোগান দিতাম, পুরো জেলায় আমি একজন খেলোয়াড় হিসেবেই পরিচিত, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পর নতুন করে আবার ঝুঁকে পড়লাম খেলায়, প্রথম বছরেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভলিবল দলের হয়ে খেলতে যাই চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।

হলের বার্ষিক প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থানসহ বেশ কয়েকবার পুরস্কার পাই, বিশ্ববিদ্যালয় ভলিবল টিম, হলের ভলিবল টিম, বিভাগের টিমের অধিনায়ক ছিলাম আমি। বিভাগের টিমের পেছনে তিন বছরে আমার হাত দিয়েই প্রায় আড়াই লক্ষ টাকা খরচ করি, একটা চকলেটের টাকাও পর্যন্ত খাতায় লিখে রেখেছি। কোন স্যার আমার বিরুদ্ধে কথাও বলেন নি। আদর্শ টা আমার বাবার কাছ থেকে শিখেছি, অন্য কারো কাছে না। দেখেছি পাই পাই করে কি ভাবে বেতনের সামান্য টাকা দিয়ে সংসার চালিয়েছেন। হলে কোন দোকানে পাঁচ বছরে কেউ টাকা পাবে এমন অভিযোগ করতে পারবেন না। আমার সাথে যারা মিশেছেন তারাই ভাল বলতে পারবেন। যারা বিভিন্ন ভাবে অপবাদ দিয়ে যাচ্ছেন তাদেরকে বলব, যদি কেউ প্রমাণ করতে পারেন এই আন্দোলন করার মাধ্যমে আমার পকেটে টাকা ঢুকেছে, তাহলে আমি মামুন কথা দিলাম রাজ পথে দাঁড়িয়ে পুরো দেশের কাছে, আমার ফাঁসি আমি নিজেই চাইব।

নেতা হওয়ার জন্য আন্দোলন করিনি, আন্দোলন করেছি ছাত্র সমাজের অধিকারের জন্য। যারা চেয়ারে বসে বা টিভির পর্দায় গলা ফাটান তাদেরকে বলব, বিশ্ববিদ্যালয়ের হল গুলোতে একবার দেখে যান আমাদের বুক ফাটা আর্তনাদ। দেখে যান গণরুম গুলোর দৃশ্য। ১৯ টি ভাইভা দিয়েও চাকরি পাননি এমন ভাইও আছেন। তাই আপনাদের কাছে আবারও বলছি, রাষ্ট্রের কল্যাণে কোটা প্রথার যৌক্তিক সংস্কার চাই, বাতিল আমরা চাইনি। বাবার পেনশনের টাকায় চলি, মাসের শুরুতে চার হাজার টাকা এনেছিলাম, এখন পকেটে আছে ত্রিশ টাকা। আমরা কেমন আছি, বিবেক কে প্রশ্ন করবেন, উত্তর পেয়ে যাবেন। নিজেদের ক্ষতি নিজেরাই করছি না তো!

পরিচিত : আহ্বায়ক, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ/মতামত গ্রহণ : মো. এনামুল হক এনা/সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ