প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কংগ্রেসের ৭০ বছরের অর্জন চার বছরে ডুবিয়েছেন মোদি: রাহুল গান্ধী

লিহান লিমা: ভারতীয় কংগ্রেসের ৭০ বছরের অর্জন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৪ বছরে ডুবিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধি। সোমবার ‘সংবিধান বাঁচাও’ প্রচারণায় রাহুল এই মন্তব্য করেন। দিল্লির তালকাতোরা স্টেডিয়াম থেকে এই প্রচারণা শুরু হয়। ভারতের দলিতদের অধিকার এই প্রচারণার মূখ্য বিষয়। তবে আবশ্যিকভাবেই কংগ্রেসের এই প্রচারণার সঙ্গে জড়িয়ে আছে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ব্যাপক অবস্থান জোরদারের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য।

সোমবারের এই ভাষণে রাহুল বলেন, আমাকে শুধু ১৫ মিনিট সময় দিন। এর মধ্যে আমি রাফেলি চুক্তি, নিরব মোদি এবং মোদিজী সম্পর্কে বলব। সবাই জানে, রাফেলি চুক্তি পুরোটাই দুর্নীতি এবং কিভাবে নিরব মোদি ৩০ হাজার কোটি রুপি নিয়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন এবং কিভাবে তার বন্ধুরা মুখ বন্ধ করে রেখেছিল। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে ভারত ফ্রান্সের সঙ্গে যুদ্ধবিমান ক্রয়ের চুক্তি স্বাক্ষর করে। কিন্তু সরকারের বিরুদ্ধে রাফেলি চুক্তির টেন্ডার ও সরকারি অর্থ কেলেঙ্কারির অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস।

রাহুল বলেন, ‘মোদির কারণে বর্হিবিশ্বে ভারতের সম্মান ক্ষুণœ হয়েছে। ধর্ষণ, দলিতদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ, সংখ্যালঘুদের আক্রমণের নামই এখন ভারত। কংগ্রেস ৭০ বছর ধরে ভারতের মর্যাদা দাঁড় করেছিল, আর মোদি সেটি ৪ বছরেই নষ্ট করে দিলেন। মোদি চান না তার দলের কেউ কোন কথা বলুক, তিনি শুধু ‘মন কি বাত’ এর মধ্যেই থাকতে চান।’ প্রসঙ্গত, এর আগে মোদি এক ভাষণে তার দলের নেতাদের ক্যামেরা দেখলেই কথা বলতে নিষেধ করেন। রাহুল আরো বলেন, ‘৮ বছরের একটি মেয়ে ধর্ষিত হয়েছে। উন্নাইতে একজন ধর্ষণের শিকার হয়েছে কিন্তু মোদির নীরবতা ভাঙেনি।’ ভারত জানে, ‘মোদির শুধু একটি জিনিসেই আগ্রহ। আর তা হল, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদিজী’। মোদিকে এখন একটি নতুন স্লোগানে আসতে হবে। সেটি হল ‘বেটি বাঁচাও’ বেটি পাঠাও ভোলার সময় হয়েছে। কন্যাদের বিজেপির কাছ থেকে রক্ষা করতে হবে। আমরা আগামী নির্বাচনে এটি আর হতে দিব না। এবার জনগণ নরেন্দ্র মোদিকে তাদের ‘মন কি বাত’ জানাবে।’

রাহুল আরো বলেন, ‘সংবিধান আমাদের অধিকার দিয়েছে, ইসি, লোকসভা, রাজ্যসভা, বিধান সভা, আইইটি, আইআইএম সংবিধান মোতাবেক আমাদের দেশের প্রতিষ্ঠান। সংবিধান ছাড়া কোন কিছুই সম্ভব নয়। কংগ্রেস ভারতকে একটি সংবিধান উপহার দিয়েছে এবং এটিকে রক্ষা করেছে। গণমাধ্যম আমাদের আক্রমণ করলেও আমরা গণমাধ্যমের পক্ষে। কংগ্রেস নারী, দিনমজুর ও দোকানদারদের মত সুবিধাবঞ্চিতদের কথা বলে। বিজেপি এবং আরএসএস আজ পর্যন্ত যা পারে নি।’

অন্যদিকে বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ রাহুলের আক্রমণের জবাবে বলেন, ‘যদি কোন দল আমাদের সংবিধানের পবিত্রতা নষ্ট করে থাকে তা হল কংগ্রেস। তারা গণতন্ত্র নয় ধ্বংস চায়। আমাদের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে কংগ্রেসের কাছ থেকে রক্ষা করতে হবে। কংগ্রেস এখন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সাধনের জন্য ইসি, সুপ্রিম কোর্ট এবং আর্মিকে আক্রমণ করছে।’ ইয়ন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত