প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আবারও শেষ ওভারে হার মুস্তাফিজের মুম্বাইয়ের

চলতি আইপিএলে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ৫টি ম্যাচ খেলেছে। যেখানে তারা হেরেছে ৪টিতেই। কাকতালীয়ভাবে প্রতিবারই শেষ ওভারে। যার সর্বশেষটি রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে গতকাল রোববার। জয়পুরে কৃষ্ণাপ্পা গৌতমের শেষের ঝড়ে ২ বল ও ৩ উইকেট হাতে রেখে জিতেছে রাজস্থান। টস জিতে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ১৬৭ রান করে মুস্তাফিজের দল। জবাবে ১৯.৪ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৬৮ রান করে রাজস্থান।
১৬৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৩৮ রানেই দুই উইকেট হারায় রাজস্থান। এরপর দলের হাল ধরেন সাঞ্জু স্যামসন ও বেন স্টোকস। দু’জনে মিলে যোগ করেন ৭২ রান। ব্যক্তিগত ৪০ রানে উইকেট হারান স্টোকস। তবে ফিফটি তুলে নেন স্যামসন। দলীয় ১২৫ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে তিনি সংগ্রহ করেন ৫২ রান। ৩৯ বলের এই ইনিংসে ছিল ৪টি চার। পরপর দুই বলে স্যামসন ও জস বাটলারের উইকেট নিয়ে রাজস্থানকে বিপদে ফেলে দেন জসপ্রিত বুমরাহ। দলীয় ১২৫ রানেই ষষ্ঠ উইকেট হিসেবে সাজঘরে ফেরেন হেনরিখ ক্লাসেন। শেষ ১৭ বলে জয়ের জন্য দলটির প্রয়োজন ছিল ৪৩ রান। এসময় দৃশ্যপটে আসেন গৌতম। ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ১১ বলে ৩৩ রান করে তিনি রাজস্থানকে পৌঁছে দেন জয়ের বন্দরে। এদিন মোস্তাফিজ ৪ ওভার বল করে ৩৫ রান খরচায় পেয়েছেন ১ উইকেট। ২টি করে উইকেট পেয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া ও বুমরাহ।
এর আগে ভাল শুরুর পরও আইপিএলে অভিষিক্ত জফরা আর্চারের দারুণ বোলিং এবং ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ১৬৭ রানেই গুটিয়ে যায় মুম্বাইয়ের ইনিংস। দলীয় সর্বোচ্চ ৭২ রান করেন সূর্য্যকুমার যাদব। ইশান কিষান করেন ৫৮ রান। আর্চার ২২ রান খরচায় পান ৩ উইকেট। ম্যাচসেরার পুরস্কারও ওঠে আর্চারের হাতে। ছয় ম্যাচে ৩ জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় ৫ম স্থানে আছে রাজস্থান। ৫ ম্যাচে ১ জয়ে ২ পয়েন্ট নিয়ে ৮ দলের মধ্যে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বাইয়ের অবস্থান ৭ নম্বরে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত