প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দৌলতখানে পুলিশের ৩ মামলায় অজ্ঞাত ৬শ আসামী, গ্রাম ছাড়া এলাকাবাসী

ফরহাদ হোসেন, ভোলা: ভোলার দৌলতখানে পুলিশ ও স্থানীয় জনতার মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ ও মৎস্য অফিসার বাদী হয়ে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করেছে। এতে আসামী করা হয়েছে প্রায় ৬ শতাধিক।

অজ্ঞাতনা মামলা করায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে পৌরসভা সক কয়েটি গ্রামের মানুষ। গত ১৯এপ্রিল বুধবার রাতে এএসআই পিন্টু দাস বাদী হয়ে ২৯ জনকে চিহ্নত করে আরো ১৫০ থেকে ২০০ জনকে অজ্ঞাত করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। যার মামলা নং ১৩/ ১৯. ০৪.২০১৮ইং।

এছাড়া উপজেলা মৎস্য সহকারী কর্মকর্তা নজরুল বাদী হয়ে চিহ্নিত ৯ অজ্ঞাত আরো ২০০ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ১৪/ ১৯.০৪.২০১৮ইং অপরদিকে মৎস্য আফিসের ট্রলার ড্রইভার নুরনবী বাদী হয়ে চিহ্নিত ৪৫ অজ্ঞাত ২০০ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ও মৎস্য অফিসের এই তিন মামলায় পুলিশ এর ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছো এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে দৌলতখান থানার অফিসার ইন-চার্জ এনায়েত হোসেন জানান, সরকারি কাজে বাঁধা সৃষ্টি করায় এবং পুলিশের উপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ ও বিক্ষোভ এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসায় হামলা করায় ও সরকারি কাজে ভাড়া ট্রলারে অগ্নিসংযোগ করায় মামলা দাঁয়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৯ শে এপ্রিল নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ ধরার অপরাধে ২ জেলেকে যৌথ আটক করে পুলিশ ও মৎস্য বিভাগ। এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে জেলে ও পুলিশ ও স্থানীয় জনতার মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত