প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মহাকাশখনিই জন্ম দেবে পৃথিবীর প্রথম ট্রিলিয়নিয়ারের : প্রতিবেদন

আসিফুজ্জামান পৃথিল: ভবিষ্যত পৃথিবীর অধিকাংশ খনিজ সম্পদ উত্তোলন হবে মহাশূন্য থেকে। এবং মহাশূন্যের এই খনিজ উত্তোলনই জন্ম দেবে পৃথিবীর প্রথম ট্রিলিয়নিয়ারের। এমনটাই উঠে এসেছে মার্কিন আর্থিক প্রতিষ্ঠান গোল্ডম্যান স্যাচেস এর প্রতিবেদনে।

প্রখ্যাত অ্যাস্ট্রোফিজিসিস্ট নেইল ডেগ্রেসি টাইসন এই বিষয়ে বলেছেন, ‘সেই ব্যক্তিই ইতিহাসের প্রথম ট্রিলিয়নার হবেন, যিনি গ্রহাণুপুঞ্জ থেকে সম্পদ আহরণের সক্ষমতা অর্জন করতে পারবেন। আমাদের মহাকাশ বিশাল এবং সেখানে অফুরন্ত সম্পদ রয়েছে। সম্পদের জন্য যুদ্ধ করা ভবিষ্যতে ইতিহাসে পরিণত হবে। একদিন মহাকাশ আমাদের উঠোনে পরিণত হবে।’

নাসা এখন পর্যন্ত ১২ হাজার গ্রহাণু চিহ্নিত করতে পেরেছে যা পৃথিবীর ৪৫ মিলিয়ন কিলোমিটার এলাকার মধ্যে ছড়িয়ে রয়েছে। ভূত্ত্ববিদরা মনে করেন, এই গ্রহাণুগুলোতে প্রচুর পরিমানে লোহা ও নিকেলের আকরিক এবং অন্যান্য মূল্যবান ধাতু রয়েছে।

গোল্ডম্যান খনি প্রযুক্তিবিদ্যার উন্নতি এবং কম খরচে মহাকাশযান উৎক্ষেপনের মতো ব্যাপারগুলিকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। প্রতিষ্ঠানটি তাদের প্রতিবেদনে বলেছে, ‘যদিও গ্রহাণুতে খননকাজ চালানোর বাহ্যিক বাঁধা অনেক কিন্তু এই ক্ষেত্রে প্রযুক্তিগত এবং আর্থিক বাঁধা কার্যক অনেক কম। মাত্র ১০ মিলিয়ন ডলার খরচ করেই সম্পদ খোঁজার যন্ত্র বানানো সম্ভব। এবং মাত্র ২,৬ বিলিয়ন ডলার খরচ করেই গ্রহাণু সংগ্রহ করার মতো যান বানানো যেতে পারে বলে ক্যালটেক জানিয়েছে।’

এখন পর্যন্ত মহাকাশ খনির ব্যাপারে সমস্থ কার্যক্রম বেসরকারী খাতেই হচ্ছে। তবে লুক্সেমবার্গের মতো দেশও এই ক্ষেত্রে এগিয়ে আসছে। বছর দুয়েক আগে এই ক্ষুদ্র ইউরোপিয়ান দেশটি মহাকাশ সম্পদ সংগ্রহের একটি উদ্যোগ গ্রহণ করে। – আরটি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ