প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সকল গুমের সাথে ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা জড়িত অভিযোগ জাফরুল্লাহর

আশরাফ চৌধুরী রাজু, সিলেট:গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘বাংলাদেশ চরম ক্রান্তিকাল অতিবাহিত করছে। ভারত আমাদের দেশকে তাদের করদরাজ্যে পরিনত করতে তাদের গোয়েন্দা সংস্থাকে ব্যবহার করছে। সিলেটের জনপ্রিয় নেতা এম. ইলিয়াস আলীসহ সকল গুমের সাথে ভারতের গোয়েন্দাসংস্থা ‘র’ জড়িত’।

শনিবার সিলেট জেলা বিএনপির আয়োজিত “ভিন্ন মতাবলম্বীদের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে গুম ও আগামীর রাজনীতি” শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন দাবি করেন।সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এম. ইলিয়াস আলী, ছাত্রদল নেতা ইফতেখার আহমদ দিনার, জুনেদ আহমদ ও ইলিয়াস আলীর গাড়ীচালক আনসার আলীর সন্ধান দাবিতে এ আলোচন সভার আয়োজন করে বিএনপি।

২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল রাজধানীর রূপসী বাংলা হোটেলে আড্ডা শেষে ফিরছিলেন বনানীর বাসায়। পথে মহাখালী সাউথ পয়েন্ট স্কুলের সামনে থেকে গাড়িচালকসহ নিখোঁজ হন ইলিয়াস আলী।

এসময় তাঁর গাড়িচালকও নিখোঁজ। সরকার তাকে গুম করেছে বলে বিএনপির পক্ষ থেকে প্রথম থেকেই দাবি করা হচ্ছে।তবে ছয় বছর পর প্রকাশ্যে ভারতের গোয়েন্দাবাহিনীর প্রতি অভিযোগের আঙ্গুল তোললেন বিএনপি অনুসারী বুদ্ধিজীবী ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

এ অনুষ্ঠানে জাফরুল্লাহ আরো বলেন, ভারতের টিপাইমুখে বাঁধ নির্মাণের প্রতিবাদে গণআন্দোলন তৈরী করায় ইলিয়াস আলীকে গুম করা হয়েছে। এই সরকারের কাছে গুমকৃতদের ফিরিয়ে দেয়ার দাবি জানিয়ে কোন লাভ নেই। কারণ তাদের পরিচালনা করছে ভারত। তাই সবার আগে দেশপ্রেমিক জনতাকে ভারতের বিরুদ্ধে জেগে উঠতে হবে।তিনি বলেন, রাজনীতিতে প্রতিযোগিতার বিকল্প নেই। কিন্তু প্রতিহিংসার মাধ্যমে বিরোধী পক্ষকে গুম এবং মামলা দিয়ে নিশ্চিহ্ন করার নোংরা রাজনীতি দেশকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

এ থেকে পরিত্রান পেতে প্রয়োজন আন্দোলন। ঘরে কিংবা হলরুমে প্রোগ্রাম নয় রাজপথ দখল নিতে হবে। তাহলে রাজনীতিতে পরিবর্তন আসতে বাধ্য। বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি না জানিয়ে সুবিচারের দাবীতে স্বোচ্ছার হতে হবে। সুবিচার নিশ্চিত হলে সাজা তো দূরের কথা বেগম খালেদা জিয়ার কথিত দুর্নীতির মামলাটিই একেবারে উড়ে যাবে।

সিলেট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এডভোকেট আব্দুল গাফফারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদের পরিচালনায় নগরীর দরগাগেইটস্থ হোটেল হলিসাইডের হলরুমে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- সম্মিলিতি পেশাজীবি পরিষদ সিলেটের সভাপতি ডা: শামীমুর রহমান, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গনিত বিভাগের অধ্যাপক ড. মো: আশরাফ উদ্দিন। নিখোঁজ নেতৃবৃন্দের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে থেকে বক্তব্য রাখেন- নিখোঁজ ছাত্রদল নেতা ইফতেখার আহমদ দিনারের বাবা ডা: মঈনুদ্দিন আহমদ, নিখোঁজ এম ইলিয়াস আলীর ভাগনী ফাতেমা বিনতিন, নিখোঁজ গাড়ী চালক আনসার আলীর স্ত্রী মুক্তা বেগম ও নিখোঁজ ছাত্রদল নেতা জুনেদ আহমদের ছোট ভাই হাসান মঈনুদ্দিন আহমদ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, জেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নুরুল হক, মহানগর সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত