প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সৌদিতে আঁটসাঁট পোশাকে ভিডিও চিত্র, ফিটনেস সেন্টার বন্ধ

সৌদি আরবে নারী মডেলকে আঁটসাঁট পোশাক পরিয়ে প্রচারণামূলক ভিডিও চিত্র তৈরি করায় একটি ফিটনেস সেন্টার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সৌদি আরবের ক্রীড়াবিষয়ক কর্তৃপক্ষ এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, রাজধানী রিয়াদে শুধু নারীদের জন্য ওই ফিটনেস সেন্টার চালানো হচ্ছিল। শুক্রবার সেটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। দেশটির ক্রীড়াবিষয়ক কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, নারী মডেলকে আঁটসাঁট পোশাক পরিয়ে প্রচারণামূলক যে ভিডিও চিত্র তৈরি করা হয়েছে, তা ‘অশালীন’। ওই ভিডিও চিত্রের কারণে জনগণের নৈতিক ভিত্তি দুর্বল হয়ে পড়তে পারে।

সৌদি ক্রীড়াবিষয়ক কর্তৃপক্ষের প্রধান তুর্কি আল-শেখ এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ‘আমরা এসব সহ্য করব না।’ তিনি আরও বলেন, ফিটনেস সেন্টারটির লাইসেন্স প্রত্যাহার করা হয়েছে। ওই ভিডিও চিত্র যাঁরা বানিয়েছেন, তাঁদের বিষয়ে তদন্ত করা এবং বিচারের মুখোমুখি করার আদেশ দিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। দেশটির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের অন্যতম পরামর্শক এই তুর্কি আল-শেখ।

সৌদি কর্তৃপক্ষের দাবি করা ‘অশালীন’ ভিডিও চিত্রের সত্যতা নিরপেক্ষভাবে যাচাই করতে পারেনি এএফপি। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফিটনেস সেন্টারের তৈরি প্রচারণামূলক ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওতে একজন নারী মডেলকে আঁটসাঁট পোশাক পরা অবস্থায় দেখানো হয়। সেই মডেলের চুল অনাবৃত ছিল। ভিডিও চিত্রে আরও দেখা গেছে, ওই নারী মডেল ব্যায়ামাগারে একটি পাঞ্চিং ব্যাগে ঘুষি মারছেন।

রাজকীয় আদালতের গণমাধ্যমবিষয়ক উপদেষ্টা সৌদ আল-কাহতানি ফিটনেস সেন্টার বন্ধের ত্বরিত পদক্ষেপের প্রশংসা করেছেন। টুইট বার্তায় তিনি বলেছেন, নৈতিক অবক্ষয় না ঘটিয়ে আধুনিকতার পথে এগিয়ে যাচ্ছে সৌদি আরব।

সৌদি আরবে নারীদের পুরো শরীর আবৃত করে জনসমক্ষে বের হতে হয়। এ ছাড়া চুল না দেখানোর নিয়মও আছে সেখানে। নারীদের ওপর কঠোর বিধিনিষেধ আছে এমন কয়েকটি দেশের মধ্য সৌদি আরব অন্যতম। গত জুলাই মাসে, টপ ও মিনি স্কার্ট পরে ছবি তোলায় এক নারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল সৌদি পুলিশ।

তবে সম্প্রতি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান নানা বিষয়ে সংস্কারের ঘোষণা দিয়েছেন। এরই মধ্যে দেশটিতে প্রথমবারের মতো স্টেডিয়ামে বসে খেলা উপভোগের সুযোগ পেয়েছেন নারীরা। এ ছাড়া আগামী জুন থেকে তাঁদের গাড়ি চালানোর অনুমতিও দেওয়া হবে। ভবিষ্যতে খেলাধুলায় নারীদের অংশ নেওয়ার সুযোগও দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সৌদি সরকার। সুত্র : প্রথম আলো

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত