প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মন্ত্রী যেন তার রাষ্ট্রীয় পদমর্যাদা ব্যবহার করে নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে না পারে

যে কোনো নির্বাচনকে অবাধ, সকলের নিকট গ্রহণযোগ্য, অংশগ্রহণমূলক ও সুষ্ঠু করার জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে আমরা বলি যে,  নির্বাচন কমিশন তার আইনসঙ্গত নিয়ম যেন মেনে চলে। অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে হবে। সাথে সাথে নির্বাচনকে প্রশাসনের প্রভাব মুক্ত রাখতে হবে। প্রশাসন ছাড়া একটি নির্বাচন অবাধ হতে পারে না। যে কারণেই বলা হয়েছিল যে, রাষ্ট্রিয় পদ, সাংবিধানিক পদ, এগুলো ধারণ করে কেউ যখন কোন এলাকায় যায়, তখন এলাকার সভাপতি/স্থানিয় প্রশাসনের উপর একটা প্রভাব পড়ে।

কোনো একটা এলাকায় একজন মন্ত্রী/এমপি যদি যান, তাহলে তিনি রাষ্ট্রের এবং সাংবিধানিক এই সুবিধাকে ব্যবহার করে প্রশাসনের উপর একটা প্রভাব বিস্তার করতে পারেন। যেটা নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে পারে। এজন্যই বলে থাকি, স্থানীয় সরকার নির্বাচন চলাকালীন কেউ যেন তার রাষ্ট্রীয় পদমর্যাদা অথবা সাংগঠনিক পদ মর্যাদাকে ব্যবহার করে নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে না পারে। মন্ত্রী-এমপিরা এলাকার নির্বাচনি কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ যদি করে, তাহলে স্থানীয় নির্বাচনের উপর একটা প্রভাব পড়বেই। কাজেই এ নির্বাচন কমিশনকে সকল দিক গুরুত্বের সাথে দেখা উচিৎ।

পরিচিতি : কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য, বাসদ/ মতামত গ্রহণ : তাওসিফ মাইমুন/ সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

সর্বাধিক পঠিত