প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দক্ষিণ চীন সাগরে মুখোমুখি অবস্থানে চীনা ও অস্ট্রেলিয়ান নৌবাহিনী

দক্ষিণ চীন সাগরে মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছিলো যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ মিত্র অস্ট্রেলিয়া এবং প্রতিপক্ষ চীনের নৌবাহিনী। শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ান নৌবাহিনীর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এই মাসের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ান নৌবাহিনীর তিনটি জাহাজ এইচএমএএস এনজাক, টোয়োম্বা এবং সাকসেস বিরোধপূর্ণ দক্ষিণ চীন সাগরের জলসীমায় চীনা নৌবাহিনীর চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়। সেসময় চীনা নৌবাহিনীর সঙ্গে তাদের নিয়মতান্ত্রিক ভাবেই বেতার সংযোগ স্থাপিত হয়। চীনা নৌবাহিনী অস্ট্রেলিয়ান যুদ্ধ জাহাজগুলোর বিতর্কিত জলসীমায় অবস্থানের উদ্দেশ্য এবং তাদের গন্তব্য সম্পর্কে জানতে চায়। এসময়, অস্ট্রেলিয়ান নৌবাহিনীর পক্ষ জানানো হয় যুদ্ধ জাহাজগুলি পূর্ব নির্ধারিত সফরসূচি অনুযায়ী ভিয়েতনাম সফর করতে এই পথ বেছে নিয়েছে।

উল্লেখ্য এই সময় দক্ষিণ চীন সাগরে চীনা নৌবাহিনী নৌমহড়ায় লিপ্ত ছিলো। অস্ট্রেলিয়ান নৌবাহিনীর জাহাজের আগমন তাই চীনা কতৃপক্ষ পরোক্ষ আগ্রাসনের উস্কানি হিসেবেই গ্রহণ করে। তবে ঠা-া মাথায় পরিস্থিতি বিবেচনা করে চীনা নৌবাহিনী অস্ট্রেলিয়ান নৌ বাহিনীর দুটি জাহাজ এনজাক এবং সাকসেসকে তাদের গন্তব্যে যাবার অনুমতি দেয়।

সাম্প্রতিক সময়ে, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান এবং ভিয়েতনামের সঙ্গে দক্ষিণ চীন সাগরের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ক্রমবর্ধমান বিরোধের মুখে অস্ট্রেলিয়া দক্ষিণ চীন সাগরে তাদের নৌবাহিনীর টহলের মাত্রা বাড়িয়েছে। এই বছরের শুরতেই দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী মরিস পেইন জানিয়েছিলেন, দক্ষিণ চীন সাগরের বিরোধপূর্ণ অঞ্চলে অস্ট্রেলিয়া তার নৌশক্তির প্রদর্শন অব্যাহত রাখবে। দ্যা ফিলিপাইন স্টার

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত