প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ক্ষতির পরেও আম-লিচু বাগানগুলোতে চলছে শেষ মুহূর্তের পরিচর্যা

জুয়াইরিয়া ফৌজিয়া: দিনাজপুরের আম ও লিচু বাগানের মালিরা গত মৌসুমে ন্যায্য দাম না পাওয়ায়, এখন তাদের মধ্যে রয়েছে উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা। কারণ শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রচুর পরিমাণে আমের মুকুল। তবে এখন ভালো ফলনের আশায় শেষ মুহূর্তে চলছে বাগান মালিকদের পরিচর্যা।

দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলাতেই কমবেশি আম ও লিচুর বাগান রয়েছে। লিচু বাগানগুলোতে মুজাফরপুরি , বেদনা , মাদ্রাজি, চায়না, বোম্বাই, কাঁঠালি আর দেশি জাতের লিচু হয়।

আর আম বাগানে গোপালভোগ, মিশ্রীভোগ , ল্যাংড়া, খিরসাপতি, ফজলি, আ¤্রপালি , হাড়িভাঙ্গা , ছাতাপড়া জাতের আম হয়। মুকুল দেখে বাগান মালিক, বাগান ক্রেতা এবং চাষিরা লাভের আশা করলেও আবহাওয়ার কারণে অনেক এলাকায় মুকুল ঝরে গেছে। তারপরও ভালো দানা এবং ছত্রাকের আক্রমণ থেকে গুটি রক্ষার জন্য দিনরাত চলছে পরিচর্যা।

বাগান মালিকরা বলেন, স্প্রে করেছি এবং মেশিন দিয়ে পানি দিয়েছি, যেন আমের মুকুল ভালো হয়। কারণ রোদ, তাপ এবং ঝড়- বৃষ্টির কারণে যেগুলো ছিল সেগুলোও নষ্ট হয়ে গেছে।

আরও একজন মালিক বলেন, অন্য এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু আমাদের এলকায় কোনো বৃষ্টি হয়নি। ফলে সব রোদে নষ্ট হয়ে গেছে।

দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, এ অবস্থায় ভালো ফলনের জন্য রোগমুক্ত এবং পোকা মাকড় প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়েছি।

জেলায় ১০ হাজার ৩শ ৮৪ হেক্টর জমিতে ৮০ হাজার মেট্রিক টন আম ও ২৪ হাজার ৬০০ মেট্রিক টন লিচু উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে কৃষি বিভাগ।

সূত্র: সময় টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত