প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পার্বতীপুর শহরের ভিতর দিয়ে ভারী যানবাহন চলছে, ভোগান্তিতে শহরবাসী

সোহেল সানী, পার্বতীপুর (দিনাজপুর): দীর্ঘ এক যুগ পর দিনাজপুরের পার্বতীপুর বাইপাস সড়ক চালুর ১০ দিনের মাথায় পূর্বের সিদ্ধান্ত অমান্য করে আবারও শহরের ভিতর দিয়ে ভারী যানবাহন চলছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে শহরবাসী, পথচারী ও স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরা। শহরের ভিতরে রয়েছে জ্ঞানাংকুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, স্টার মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিশু বিদ্যাপীঠ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়, পার্বতীপুর আদর্শ ডিগ্রী কলেজ ও রুস্তম নগর দ্বি-মুখী দাখিল উচ্চ বিদ্যালয়। অপেক্ষাকৃত কম প্রশস্ত সড়কে বাস-ট্রাক চলাচলের কারনে ঘন্টার পর ঘন্টা যানযটের কবলে পড়ে অপেক্ষা করতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। সেই সাথে শহরের প্রধান সড়ক সংলগ্ন দুই পাশের দোকান পাট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায় অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, পার্বতীপুর শহরকে যানযট মুক্ত করতে শহরের পূর্ব পাশ দিয়ে দীর্ঘ এক যুগ আগে বাইপাস সড়ক নির্মিত হয়। তার পরেও বাইপাস ছেড়ে শহরের ভিতর দিয়ে যানবাহন চলাচল করে আসছিল। জনগনের দীর্ঘ দিনের দাবী মেনে গত ১ এপ্রিল বাইপাস সড়ক ব্যবহার বাধ্যতামুলক করেন পার্বতীপুর উপজেলা প্রশাসন। এতে স্বস্তি ফিরে আসে শহরের ব্যবসায়ী ও সাধারন মানুষের মধ্যে। সড়ক চালুর ১০ দিন পরে হঠাৎ করে গত ১১ এপ্রিল আবারও বাইপাস ছেড়ে শহরের ভিতর দিয়ে বাস-ট্রাক চলাচল শুরু হয়।

শহরের একাধিক মুদি ব্যবসায়ীরা বলেন, বাইপাস চালু হওয়ায় আমরা স্বস্তিতে ছিলাম। আবারও বাস-ট্রাক শহরগামী হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সাধারন ব্যবসায়ীরা।

এব্যপারে জানতে চাইলে পার্বতীপুর পৌর মেয়র এজেডএম মেনহাজুল হক বলেন, সমঝোতার ভিত্তিতে বাইপাস সড়ক ব্যবহার শুরু করেছিল যাত্রীবাহী বাসগুলো। কিন্তু চার্জার ভ্যানগুলো সহযোগিতা না করায় পূর্বের অবস্থায় ফিরে এসেছে বাসগুলো বলে দাবি করেন।

এব্যপারে পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তরফদার মাহমুদুর রহমান বলেন, বাস-ট্রাক মালিকরা বাইপাস সড়ক ব্যবহার না করে পুর্বের সিদ্ধান্ত অমান্য করে আবারও শহরের ভিতর দিয়ে ভারী যানবাহন চালাচ্ছে। সবার সহযোগিতায় শহরের ভিতর দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ করা সম্ভব।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত