প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দু’দিনেও উদ্ধার হয়নি আমতলীর পায়রা নদীতে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ শিশু

মো. জয়নুল আবেদীন,আমতলী (বরগুনা): দু’দিনেও উদ্ধার হয়নি আমতলীর পায়রা নদীতে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া শিশু মারুফ হাসান।

রবিবার রাত ৮টার দিকে বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সোমবার বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত শিশুটিকে উদ্ধার করা যায়নি। পরিবারের সদস্যসহ শত শত জনতা পায়রা নদীর পাড়ে শিশুটির উদ্ধার কাজ প্রত্যক্ষ করছে। শিশুটিকে হারিয়ে পরিবারে শোকের মাতম চলছে।

জানাগেছে, পৌর শহরের গরুর বাজার এলাকায় রবিবার বিকেলে চার বন্ধু মিলে পায়রা নদীর কিনারে ছোয়াছুয়ি খেলা খেলতে ছিল। এক পর্যায় তিন বন্ধু পাড়ে উঠলেও মারুফ হাসান উঠতে পারেনি। খবর পেয়ে আমতলী ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে যায়।

রবিবার রাত ৮টার দিকে বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল শিশুটিকে উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। সোমবার বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত শিশুটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়নি। ডুবুরী দলের প্রধান নবিন ও রওশানসহ পাঁচ জন অব্যাহত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া স্থানীয় লোকজন নিজস্ব প্রচেষ্টায় উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছেন। নিখোঁজ মারুফ হাসানের বাড়ী বাসুগী গ্রামে। তার বাবার নাম মো. জাফর হাওলাদার। মারুফ আমতলী বন্দর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন তাহফিজুল কুরআর ক্যাডেট হাফিজি মাদ্রাসার ছাত্র।

উদ্ধার কাজে অংশ নেয়া ডুবুরী নবিন ও রওশান বলেন, ডুবে যাওয়া স্থান থেকে দু’কিলোমিটারের মধ্যে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছি, কিন্তু শিশুটির কোন সন্ধান পাচ্ছি না।

আমতলী ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার লিটন হাওলাদার জানান, বরিশাল বিভাগীয় ফায়ার সার্ভিস অফিস থেকে পাঁচ সদস্যের একটি ডুবুরী দল এসে উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছেন। এখনও কোন সন্ধান পায়নি।

আমতলী থানার ওসি মো. সহিদ উল্যাহ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। তারা উদ্ধার কাজে সহযোগীতা করছে।

আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সরোয়ার হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছি। তিনি আরও বলেন যতক্ষনে উদ্ধার না হবে ততক্ষন পর্যন্ত উদ্ধার কার্যক্রম অব্যাহত রাখার নির্দেশ দিয়েছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত