প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চার বছর পর কবর পাচ্ছে লাইজু

ডেস্ক রিপোর্ট : নীলফামারীর হোসনে আরা লাইজুর (নিপা রানী) লাশ ইসলামী রীতিতে দাফনের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। রায়ের কপি পাওয়ার তিন দিনের মধ্যে তা দাফন করতে হবে। আইনি জটিলতায় চার বছরের বেশি হাসপাতালের মর্গে পড়ে আছে তার লাশ। নীলফামারীর জেলা প্রশাসককে এই নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতে দাফন করতে হবে। এর আগে লাশ লাইজুর বাবার পরিবারকে দেখার সুযোগ দিতে বলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরীর একক হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে মেয়ের বাবার পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট সমীর মজুমদার। ছেলের বাবার পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট একেএম বদরুদ্দোজা।

ভালোবেসে লাজু নামে এক যুবককে বিয়ে করেছিল নিপা রানী। ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পর তার নাম রাখা হয় হোসনে আরা লাইজু। এই বিয়ে মেনে নিতে পারেনি লাইজুর পরিবার। লাইজু অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় লাজুর বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা করে তার পরিবার। এ মামলায় লাজুকে নেয়া হয় কারাগারে। লাইজুকে রাখা হয় নিরাপত্তা হেফাজতে। পরে লাইজুকে বাড়িতে ফিরিয়ে নেয় তার পরিবার। লাজুও জেল খেটে বের হয়। কিছু দিন পর লাজু বিষপানে আÍহত্যা করে। শোকে একই পথ বেছে নেয় লাইজুও। এরপর লাইজুর মরদেহ দাবি করে আদালতে মামলা করে দুই পক্ষই। ২০১৪ সালের ১০ মার্চ থেকে লাশ পড়ে আছে রংপুর হাসপাতালের হিমঘরে। সূত্র : যুগান্তর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত