প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সৌদির কাছে অস্ত্র বিক্রি না করতে ম্যাক্রোঁকে ফ্রান্সের সাংসদদের আহবান

রাশিদ রিয়াজ : তিন দিনের সফরে সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান যখন ফ্রান্সে অবস্থান করছেন তখন দেশটির শতাধিক সাংসদ ইয়েমেনে আগ্রাসন ও মানবিক বিপর্যয়ের কারণে সৌদি আরবে অস্ত্র বিক্রি না করার আহবান জানিয়েছেন। তারা সৌদি আরবে ফ্রান্সের অস্ত্র বিক্রির ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর কাছে তা না করার আহবান জানিয়ে বলেন, ফ্রান্সের অস্ত্র বিক্রি সংস্থা ওডিএএস’এর মাধ্যমে সৌদি আরবে আর যেন নতুন করে অস্ত্র বিক্রি করা না হয়। সাংসদ ছাড়াও বেশ কয়েকজন কূটনীতিক সৌদি আরবে ফ্রান্সের অস্ত্র বিক্রি না করার পক্ষে। তবে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে ওডিএএস দেশটির স্বার্থ বিবেচনা করেই অস্ত্র বিক্রির সিদ্ধান্ত নেবে। স্পুটনিক

ফ্রান্স ও সৌদি আরবের মধ্যে যে আন্ত:সরকার সম্পর্ক বা চুক্তি রয়েছে অস্ত্র বিক্রির ক্ষেত্রে তা অনুসরণ করে ওডিএএস। কিন্তু সৌদি ক্রাউন প্রিন্সের ফ্রান্স সফরের সময় দেশটির কাছে অস্ত্র বিক্রির চাপ আরো বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন ফ্রান্সের সাংসদরা। তারা বলছেন, অস্ত্র বিক্রি করলে তা ইয়েমেনে নিরাপরাধ মানুষের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হবে। এর আগে ফ্রান্সের ৩০ জন সাংসদের নিয়ে গঠিত একটি কমিশন ইয়েমেন যুদ্ধে সৌদি আরবকে ফ্রান্সের সহযোগিতা নিয়ে তদন্তের দাবি জানায়।

ফ্রান্সের সাংসদ সেবাস্তিন ন্যাদত বলেছেন, ইয়েমেনে অস্ত্র বিক্রি ছাড়াও দেশটিতে সংঘর্ষ, দ্বন্দ্ব নিরসনে প্রশিক্ষণ বা অন্যান্য ধরনের সহযোগিতায় ফ্রান্সের সম্পৃক্ততা ও প্রতিশ্রুতি খতিয়ে দেখা প্রয়োজন। এয়ারবাস হেলিকপ্টার, কামান, যুদ্ধ জাহাজ, মিলান এ্যান্টি-ট্যাঙ্ক মিসাইল, ভিএবি এমকে থ্রি সাজোয়া যান সহ ৭৫ ধরনের অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম সৌদি আরবে বিক্রি করছে ফ্রান্স। সৌদি ক্রাউন প্রিন্স সফরের সময়ে ফ্রান্স থেকে ৭৩৮ মিলিয়ন ডলার মূল্যের সিএমএন’এর তৈরি ৪০টি নৌ টহল বোট ক্রয়ের একটি চুক্তি হবার কথা রয়েছে। গত সপ্তাহে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ সহ ১২টি মানবাধিকার সংগঠন প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁর কাছে সৌদিতে অস্ত্র বিক্রি না করার অনুরোধ জানায়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত