প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চীনের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পর রাজকুমারের ভাতা কেটে নিল বেলজিয়াম

হামিম আহসান : সরকারের অনুমতি ব্যতীত চীনের কূটনৈতিক সম্মেলনে যাওয়ার কারনে রাজকুমার লরেন্ট অব বেলজিয়ামের ভাতা কেটে নিয়েছে সেদেশের সরকার। নৌবাহিনীর আনুষ্ঠানিক পোষাক গায়ে গত বছর চীনে অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ায় আগামী এক বছরের জন্য তাকে ১৫ শতাংশ কম ভাতা দেওয়া হবে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

শুক্রবার সংসদে প্রতিনিধিদের ভোটে রাজকুমারের বেতন ভাতা কমিয়ে আনার বিলটি পাশ হয়। তার বিরুদ্ধে নেওয়া এই ব্যবস্থার প্রস্তাব করেছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী চার্লস মাইকেল। রাজকুমারের বার্ষিক ভাতা ৩ লাখ ৭৮ হাজার ডলার থেকে ১৫ শতাংশ কমিয়ে দিয়ে এখন ২ লাখ ৭০ হাজার ডলার করা হয়েছে।

তবেএর আগে রাজকুমার তার ভাতা না কমানোর অনুরোধ জানিয়ে বেলজিয়ামের সংসদ সদস্যদের নিকট আবেগপ্রবণ চিঠি লিখেন। কিন্তু এতেও মন গলেনি উপরের মহলের।

তিন পৃষ্ঠার চিঠিতে তিনি লিখেন, রাজপরিবারের সদস্য হওয়ায় জীবিকা নির্বাহে কোনও চাকরি করতে পারেন না তিনি। বিয়ে করার জন্যও আমাকে অনুমতি নিয়ে হয়। নিজের পছন্দের নারীকে বিয়ে করার জন্য আজও আমাকে মাশুল দিতে হচ্ছে। না আমার সম্পদ আছে আর না রাজকীয় খেতাব।

বেলজিয়াম রাজা ফিলিপের ছোট ভাই রাজকুমার লরেন্ট। গতবছর চীনা সেনাবাহিনীর ৯০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যান রাজকুমার। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে তিনি পূর্ণ সামরিক পোশাকে উপস্থিত হয়েছিলেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে না জানিয়ে কূটনৈতিক সম্পর্কে না জড়ানোর বিষয়ে রাজকুমারকে আগেই সতর্ক করেছিলেন বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত রাজকুমার লরেন্টকে নিয়ে এটাই প্রথম বিতর্ক নয়। তিনি বেলজিয়েমে ‘অভিশপ্ত রাজকুমার’ নামে পরিচিত। এর আগে তাকে কয়েকবার গতিসীমা ভঙ্গের জন্য জরিমানা দিতে হয়েছে। গাদ্দাফি বেঁচে থাকা অবস্থায় লিবিয়াতে এক বৈঠকে তার যোগদান নিয়েও সমালোচনা হয়েছিল। তাছাড়া সরকারি অনুমতি ছাড়াই ২০১১ সালে বেলজিয়ামের সাবেক উপনিবেশ কঙ্গোতে গেলে তাকে নিয়ে বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ে।

সূত্র: আমাদের সময়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত