প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চাঁদপুরে চমক নিয়ে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

}

রবিন আকরাম : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আট বছর পর আগামী রোববার (১ এপ্রিল) চাঁদপুর আসছেন। প্রধানমন্ত্রীকে বরণ করে নিতে চাঁদপুরে উৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছে। বেশির ভাগ রাস্তার দুপাশ ও মোড় বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে। শহরের বাবুরহাট পুলিশ লাইন থেকে স্টেডিয়াম পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে বড় বড় বিলবোর্ড আর তোরণে শোভা পাচ্ছে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের চিত্র। অভিনন্দন জানিয়ে সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপ্রত্যাশী ব্যক্তিরাও তোরণ ও বিলবোর্ড দিয়ে সড়ক সাজিয়ে তুলেছেন। প্রধানমন্ত্রীর সফরের প্রস্তুতি পর্যবেক্ষণে ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় একাধিক নেতা চাঁদপুর ঘুরে গেছেন। স্থানীয় সংসদ সদস্যরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সম্পাদকের সঙ্গে সার্বক্ষণিক তদারকি করছেন।

গত বুধবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চূড়ান্ত সফরসূচি পাঠানোর তথ্য মতে, সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী হাইমচরে বেলা ১১টায় বাংলাদেশ স্কাউটসের ৬ষ্ঠ জাতীয় কমডেকার উদ্বোধন করবেন। বেলা ৩টায় চাঁদপুর স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সর্বশেষ ২০১০ সালের ২৫ এপ্রিল তিনি চাঁদপুর সফর করেন। ওই সময়ে চাঁদপুরের গুনরাজদী বালুর মাঠে ১৫০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎকেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। ১৯৯৯ সালের ২৮ নভেম্বর চাঁদপুর সফরকালে নতুনবাজার-পুরানবাজার সেতু ও চাঁদপুর পৌর অডিটরিয়ামের ভিত্তিফলক স্থাপন এবং জেলা কালেক্টরেট ভবন ও আদালত ভবনের ভিত্তিফলক উন্মোচন করেন।

বর্তমান সরকারের শেষ মুহূর্তে এ সফরে চাঁদপুরে ৪৮টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এর মধ্যে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ২৫টির আর উদ্বোধন ২৩টির। উদ্বোধনের উল্লেখযোগ্য প্রকল্পগুলো হচ্ছে: চাঁদপুর পৌরসভার দুটি পানি শোধনাগার, চাঁদপুর সরকারি কলেজের বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রীনিবাস, পুরানবাজার ডিগ্রি কলেজের চতুর্থ তলা একাডেমিক ভবন, মতলবে ধনাগোদা নদীর ওপর মতলব সেতু, ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি ও মেঘনা নদীর ভাঙন থেকে রক্ষায় পুরানবাজার, ইব্রাহীমপুর, সাখুয়া, চাঁদপুর সেচ প্রকল্পের হাইমচর এলাকার তীর সংরক্ষণ প্রকল্প।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের কোনো দাবি থাকবে না। কারণ ইতিমধ্যে তিনি অনেক দাবি পূরণ করেছেন। এরপরও নেত্রীর পক্ষ থেকে চমক থাকতে পারে।

চাঁদপুরবাসীর পক্ষ থেকে উন্নয়নের কিছু দাবি উঠেছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে্—মেঘনা নদীতে চাঁদপুর-শরীয়তপুর সেতু, চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা, হাইটেক পার্ক, স্বতন্ত্র ইলিশ গবেষণা ইনস্টিটিউট, ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠা ও চাঁদপুরকে পর্যটন নগরী ঘোষণা।

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রথম আলো

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত