প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘গত ছয় বছরে দেশে দারিদ্রের হার কমেছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ’

সাইদ রিপন : বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ২০১৭ সালের প্রতিবেদন অনুযায়ী গত ছয় বছরে দেশে দারিদ্রের হার কমেছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ। ২০১৬ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৭ সালের মার্চ পর্যন্ত এই খানা জরিপ করেছে বিবিএস। এর আগের জরিপটি করা হয়েছিলো ২০১০ সালে। ২০১৭ সালের জরিপ অনুযায়ী দেশের দারিদ্যের হার ছিল ২৪ দশমিক ৩ শতাংশ। যা ২০১০ সালে ছিল ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ এবং ২০০৫ এ হার ছিল ৪০ শতাংশ। এই প্রতিবেদন অনুযায়ী অতি দারিদ্র্যের হার ১২ দশমিক ৯ শতাংশ। যা ২০১০ সালে ছিল ১৭ দশমিক ৬ শতাংশ।

সূত্র জানায়, নব্বইয়ের দশকে বাংলাদেশে দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করত অর্ধেকের বেশি লোক। ১৯৯১ সালে এই হার ছিল ৫৮ শতাংশ। ২০০৫ সালে এই হার নেমে আসে ৪১ শতাংশের মতো। আর গত ১৩ বছরে এটা আরও প্রায় অর্ধেকে নেমেছে। সবশেষ পরিসংখ্যানের হিসাবে প্রতি দিন প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার মানুষ দারিদ্র্যসীমা পেরিয়ে যাচ্ছেন। ২০১৭ সালে প্রকাশিত বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) খানা জরিপ প্রতিবেদনে বাংলাদেশের জনসংখ্যা ছিল ১৬ কোটি ১৭ লাখ। প্রতি বছর ২০ লাখ মানুষ বাড়লে এই সংখ্যা এখন ১৬ কেটি ৩৭ লাখের কাছাকাছি। জরিপ মতে প্রতি বছর দারিদ্র্যমুক্তি হচ্ছে ১ দশমিক ২ শতাংশ হারে। অর্থাৎ বছরে ১৯ লাখ ৬৫ হাজারের মতো মানুষ দারিদ্র্য থেকে মুক্তি পাচ্ছে। প্রতিদিনের হিসাবে এটা হয় পাঁচ হাজার ৩৮১ জন। ধারাবাহিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, দারিদ্র্য বিমোচন, রফতানি আয়, বৈদেশিক শ্রমবাজার, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, সামাজিক বৈষম্য নিরসনসহ প্রায় সব সূচকেই অগ্রগতি করছে বাংলাদেশ।

২০১৭ সালের জরিপ অনুযায়ী দেশের দারিদ্রের হার ছিল ২৪ দশমিক ৩ শতাংশ। ২০১০ সালে যা ছিল ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ এবং ২০০৫ এ ছিল ৪০ শতাংশ। এই প্রতিবেদন অনুযায়ী অতি দারিদ্র্যের হার ১২ দশমিক ৯ শতাংশ, যা ২০১০ সালে ছিল ১৭ দশমিক ৬ শতাংশ। সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় সরকার ২০২০ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার ১৮ দশমিক ৬ শতাংশে নামিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়েছে। ওই সময়ে চরম দারিদ্র্য হার ৮ দশমিক ৯ শতাংশে নেমে আসবে বলে আশা করছে সরকার। বাস্তবতা বিবেচনায় ওই লক্ষ্য অর্জনে সঠিক পথেই আছে বাংলাদেশ।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও পল্লী-কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, অনেকে এক সময় বলেছে আমাদের দেশের কোনো ভবিষ্যৎ নেই। কিন্তু আমরা তো সেটাকে ভুল প্রমাণ করেছি। আমরা গত আট নয় বছরে ধারাবাহিকভাবে অগ্রগতি করেছি। অর্থনৈতিক, সামাজিক সূচকসহ প্রতিটি সূচকেই অগ্রগতি করেছি। এখন আমরা বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করা দেশ। তিনি বলেন, আমাদের আরও উন্নতির সুযোগ রয়েছে। এখনও বাংলাদেশে তিন কোটি ৬৬ লাখের বেশি মানুষ দারিদ্র্য সীমার নিচে রয়েছে। আর এই মানুষকে দারিদ্র্য থেকে বের করে আনাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই দেখা হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত