প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুক্তিযোদ্ধা কোটা সারাজীবন থাকা উচিত

উম্মে জান্নাতুল মারিয়া : কোটার ভরসায় কেউ লেখাপড়া না করে বসে থাকে না। একজন শিক্ষার্থী যদি ভালো না হয়, তাহলে সে কীভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরিক্ষায় পাস করে? শুধুমাত্র কোটার উপর ভিত্তি করেই যে কেউ চান্স পাচ্ছে এমনটা তো নয়। পড়াশুনা করে, ভালো রেজাল্ট করে, একটি ভালো স্কোর গড়ে, তার পরেই তো সে চান্স পাচ্ছে। শুধুমাত্র কোটা দিয়ে আবেদন করলো, তার পরেই টিকে গেল, এমনটি কিন্তু নয়। যাদের কোটা ভিত্তিক আবেদন করার সুযোগ আছে, তাদের মধ্যেও অনেকেই কোটা ব্যতিত এবং সাধারণ ভাবেই আবেদন করছে। কোটার বিরুদ্ধে আন্দোলন করা মানেই মুক্তিযোদ্ধাদের অপমান করা । আরো কতো কোটা তো রয়ে গেছে। সেসব কোটা নিয়ে কোন কথা আসে না, শুধু মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়েই কথা হচ্ছে।

যারা মুক্তিযুদ্ধ করেছে এবং যাদের পরিবারের কেউ মুক্তিযোদ্ধা, তারাই জানেন কতোটা কষ্ট তখন হয়েছে। প্রজন্মের পর প্রজন্ম মুক্তিযোদ্ধা কোটা পেতে পারে না এই কথাটি ভুল। অবশ্যই কোটা সুবিধা দেওয়া উচিত। যারা মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান, এমনটি তো নয় যে তারা অপারগ। কোটার মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের সাহায্য করা হচ্ছে, এমনটি তো নয়, এটা শুধুমাত্র তাদেরকে একটু সম্মান দেওয়া হচ্ছে।

তাহলে কেন আমরা এই সম্মান টুকু দিবনা? সুতরাং মুক্তিযোদ্ধা কোটা টা সারাজীবন থাকা উচিত।

পরিচিতি : শিক্ষার্থী, গার্হস্থ্য অর্থনীতি/মতামত গ্রহণ : মাহবুবুল ইসলাম/সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত