প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাঙ্গামাটিতে দুই নেত্রীকে উদ্ধারের দাবিতে অবরোধ

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি: ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) সমর্থিত হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ও রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক দয়া সোনা চাকমার অপহরণের ঘটনায় বর্মা বাহিনীকে (তপন জ্যোতি চাকমা ওরফে বর্মা) দায়ী করে তাদের গ্রেফতার ও দুই নেত্রীকে উদ্ধারের দাবিতে রাঙ্গামাটিতে সকাল-সন্ধ্যা অবরোধ পালন করছে ইউপিডিএফের তিন সংগঠন।

বুধবার সকালে অবরোধের সমর্থনে রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম ও রাঙ্গামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে ইউপিডিএফের নেতাকর্মীরা পিকেটিং করেছে।

এদিকে অবরোধের কারণে সকাল থেকেই রাঙ্গামাটি থেকে খাগড়াছড়িগামী দূর পালার কোনও বাস ছেড়ে যায়নি। তবে রাঙ্গামাটি শহরে অভ্যন্তরীণ যোগাযোগের মাধ্যম অটোরিকশা ও চট্টগ্রামগামী বাস চলাচল করতে দেখা গেছে। এছাড়া রাঙ্গামাটির শহর থেকে নৌ-পথে অন্যান্য উপজেলাগুলোর উদ্দেশ্যে সকল নৌ-যান ছেড়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সত্যজিৎ বড়ুয়া জানান, অবরোধ চলাকালে আমরা পিকেটিং এর খবর পাইনি। সকাল থেকেই রাঙ্গামাটি শহরে ও চট্টগ্রামগামী বাস ছেড়ে গেছে। তবে খাগড়াছড়ি রোডে আমরা টহলে যাচ্ছি।

প্রসঙ্গত, গত রোববার সকাল নয়টার দিকে রাঙ্গামাটির কুতুকছড়ি আবাসিক এলাকায় গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের নেতা ধর্ম সিং চাকমার বাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে সন্ত্রাসীরা। এ সময় গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের নেতা ধর্ম সিং চাকমার পায়ে গুলি লাগে। পরে আত্মরক্ষার্থে ধর্ম সিং ও পিসিপির রাঙ্গামাটি জেলার সভাপতি কুনেন্টু চাকমা পালিয়ে যায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা ছাত্রদের একটি মেসে আগুন ধরিয়ে দেয় ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ও রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক দয়া সোনা চাকমাকে অপহরণ নিয়ে যায়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত