প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মাত্র ৮ হাজার টাকায় পাবেন ১ লাখ রুপি!

ডেস্ক রিপোর্ট : জাল রুপি তৈরির গুরু হিসেবে খ্যাত দরুদুজ্জামান বিশ্বাসের কাছে হাতেখড়ি নিয়ে এক যুগ আগে জাল টাকা ও রুপি বানানো শুরু করেন মো. হুমায়ুন কবির। এরপর আপন ছোটভাই কাউছারকে টেনে আনেন এই কাজে।

এভাবেই কাওছার, স্বপন, সাইফুল, সাইদুরসহ অন্য সহযোগীদের নিয়ে ধীরে ধীরে জাল টাকা ও রুপি তৈরি এবং তা বাজারে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য বিশাল সিন্ডিকেট গড়ে তোলেন হুমায়ুন।

সোমবার ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মো. আবদুল বাতেন এসব তথ্য জানান।

এর আগে রোববার রাজধানীর মোহাম্মদপুরে অভিযান চালিয়ে হুমায়ুনসহ চক্রটির চার সদস্যকে আটক করে ডিবি (উত্তর) বিভাগের ক্যান্টনমেন্ট জোনাল টিম।

চক্রটির অন্য সদস্যরা হলেন- মো. সাইফুল ইসলাম, স্বপন দত্ত ও মো. সাইদুর রহমান। তাদের কাছ থেকে ৩০ লাখ ভারতীয় জাল রুপি এবং জাল রুপি তৈরির কাজে ব্যবহৃত ল্যাপটপ, প্রিন্টার, কার্টিজ, বিশেষ ধরনের কাগজ, স্কেল, গ্লাস, কাটার, গ্লু ও স্ক্রিন প্রিন্ট দেওয়ার সামগ্রী জব্দ করা হয়।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার আবদুল বাতেন বলেন, হুমায়ুন এক যুগেরও বেশি সময় ধরে প্রথমে জাল টাকা এবং পরবর্তী সময়ে ভারতীয় জাল রুপি তৈরি ও বিপণন করে আসছে।

তিনি বলেন, আটককৃতদের মধ্যে সাইদুর মূলত জাল রুপি তৈরির পেপার বিশেষ প্রক্রিয়ায় তৈরি করতো। পরে ওই পেপার প্রতি পিস (এ-৪) ৩ থেকে ৪ টাকা করে কিনতো হুমায়ুন। ভারতীয় এক লাখ জাল রুপি তারা ৭ থেকে ৮ হাজার টাকায় ভারতীয় সিন্ডিকেটের কাছে বিক্রি করতো। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা হয়েছে। সূত্র : পরিবর্তন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত