প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পলিথিন বর্জ্য থেকে তেল-গ্যাস-কালি তৈরির প্রযুক্তি উদ্ভাবন (ভিডিও)

ডেস্ক রিপোর্ট: পরিবেশের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর উপাদান পলিথিন। মাটির উর্বরতা বিনষ্টকারী, অপচনশীল এই পলিথিন ক্ষতিকর জেনেও ফেলা হয় যত্রতত্র। এতে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ। তবে, বর্জ্য হিসেবে পড়ে থাকা পলিথিনের বিকল্প ব্যবহারের প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছেন জামালপুর সদরের মঙ্গলপুর গ্রামের তৌহিদুল ইসলাম তাপস।

পলিথিনের বর্জ্য থেকে তেল, এলপি গ্যাস, কম্পিউটারের কালি উৎপাদন করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন তাপস। তার এই উদ্ভাবন দেখতে রোজ ভিড় করছেন আশপাশের মানুষ। তাপসের বিস্ময়কর আবিষ্কারের স্বীকৃতি মিলেছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকেও।

একসময় তার বাড়ির পাশে পড়ে থাকা পলিথিন নিয়ে বিপাকে পড়েন। এই বর্জ্যরে বিকল্প ব্যবহারের উপায় খুঁজতে থাকেন তৌহিদুল। পরে পলিথিন বর্জ্য থেকে পেট্রল, তেল, ডিজেল, গ্যাস তৈরির প্রযুক্তি বের করেন। ২০১১ সালে প্রথম তিনি পলিথিন বর্জ্য থেকে পেট্রল, ডিজেল ও কেরোসিন আলাদা করেন। পরের বছরের জানুয়ারি থেকে প্লান্টে উৎপাদিত পেট্রল দিয়েই চলছে তাপসের নিজের মোটরসাইকেল।

জামালপুর শহরের বাইপাস রোড়ের পৌরসভার বর্জ্য শোধনাগারের স্থানে ১৫০ কেজি সাপোর্টের একটি প্লান্ট বসানো হয়েছে। সেখান থেকে বর্তমানে ১০৫ লিটার তেল, ১৫ থেকে ২০ লিটার এলপি গ্যাস এবং কয়েক লিটার ছাপার কালি উৎপাদন হচ্ছে।

তৌহিদুলের উদ্ভাবনী কাজে সার্বিক সহযোগিতা করেন তার কলেজের রসায়ন বিভাগের প্রভাষক। প্লান্টটি দেখার জন্য প্রতিদিন ভিড় করছেন বিভিন্ন বয়সী মানুষ। তাপসের উদ্ভাবন পলিথিন বর্জে্যর যন্ত্রনা থেকে রক্ষার পাশাপাশি যোগান দেবে জ্বালানি তেলেরও। সেই সঙ্গে প্লান্টটিকে বড় করলে এখানে প্রচুর কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলেও আশা করা হচ্ছে।

বিস্ময়কর এই আবিষ্কারে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিও কেড়েছেন তিনি। জেলা প্রশাসন থেকে তাকে নানাভাবে সহায়তা করা হচ্ছে। সূত্র: একুশে টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত