প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কৃষকরা যখন মরছিল মোদি তখন যোগব্যায়ামে ব্যস্ত ছিলেন : রাহুল

আসিফুজ্জামান পৃথিল: কংগ্রেসকে পা-ব আর বিজেপিকে কৌরবদের সাথে তুলনা করেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। তিনি অভিযোগ করেন যখন দেশের কৃষকরা না খেতে পেয়ে মারা যাচ্ছিল তখন প্রধানমন্ত্রী ভারতের গৌরব পুনরুদ্ধারের নামে যোগব্যায়ামে ব্যস্ত ছিলেন।

মহাভারতের উদাহরন টেনে নেহরু পরিবারের পঞ্চম প্রজন্মের এই রাজনীতিবিদ বলেন কৌরবরা অর্থের ঝলমলানিতে অন্ধ হয়ে গিয়েছিল, ক্ষমতার নেশায় মত্ত হয়ে গিয়েছিল। কংগ্রেসের কারণে দেশের মানুষ এসব আশা করেননা। আমরা পান্ডবদের মতো এই যুদ্ধে ন্যায় করতে চাই।

তিনি অভিযোগ করে বলেন দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতি হবার পরেও ভারতের তরুনেরা আজ বেকার। পুঁজিবাদীদের সহায়তায় ক্ষমতায় আসা বিজেপি জনগনের জন্য কথা বলেনা। কথা বলে ধনী পুঁজিবাদীদের জন্য। লক্ষ লক্ষ কৃষক যখন মারা যাচ্ছিল তখন প্রধানমন্ত্রী মোদী যোগ শোভাযাত্রা নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। তীব্র শ্লেষের সঙ্গে রাহুল বলেন, ‘তরুণরা আজ বেকার, কৃষকরা খেতে পায়না? কোন সমস্যা নেই! চলো কোটি টাকা খরচ করে ইন্ডিয়া গেটের সামনে যোগ শোভাযাত্রা করি’।

আরএসএস এবং বিজেপির সাম্প্রদায়িক আচরনের তীব্র সমালোচনা করেন রাহুল। তিনি বিজেপির বিরুদ্ধে দেশের মানুষকে বিভক্ত করার অভিযোগ আনেন। তিনি বলেন, ‘লাখ লাখ মুসলমান যারা কোনদিন পাকিস্তানে যায়নি সবসময় এই মহান দেশকে ভালোবেসেছে তাঁদের তারা (আরএসএস-বিজেপি) বলেছে দেশ ছেড়ে চলে যাও! তারা তামিলদের বলেছে নিজেদের অসাধারণ ভাষা পরিবর্তনের জন্য! তারা উত্তর পূর্বের মানুষ কি খাবে তাও ঠিক করে দিতে চাইছে! তারা নারীদের বলেছে ভদ্রস্ত পোষাক না করলে তোমাদের মারধোর করবো! তারা গৌরী-লঙ্কেশ এবং কালবুর্গিদের বলেছে আমাদের প্রশ্ন করলে তোমাদের মরতে হবে! তারা আমাদের সৎ ব্যবসায়ীদের চুপ করিয়ে দিয়েছে এবং অসৎ কর্মকর্তাদের দূর্নীতির সুযোগ করে দিয়েছে।

রাহুল গান্ধী ভারতের স্বাধীনতায় কংগ্রেসের অবদানের প্রশংসা করেন। এই প্রসংগে তিনি বলেন, ‘আমাদের নেতা মহাত্মা গান্ধী যখন দেশের স্বাধীনতার জন্য জেলখানার মেঝেতে শুয়ে ছিলেন, আপনাদের নেতা সাবারকার তখন ব্রিটিশ সরকারের করুণা চেয়ে চিঠি লেখায় ব্যস্ত ছিলেন’।

তিনি বলেন বিজেপি যেখানে শুধু নিজেদের কথাই বলে কংগ্রেস সারা দেশের কথা বলে। এনডিটিভি, ইয়ন

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত