প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১৬০ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে বাংলাদেশ

সারোয়ার জাহান: নিদাহাস ট্রফির আজকের লড়াইটা দুই দলের জন্যই বাঁচা-মরার। জিতলেই ফাইনাল- এমন সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে মাঠে নেমেছিল স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা এবং বাংলাদেশ। ভাল শুরু করলেও বাংলাদেশ বোলাররা শেষটা মুড়তে পারেনি প্রত্যাশামাফিক।  অঘোষিত সেমিফাইনালে বাংলাদেশ লঙ্কানদের বেঁধেছে ১৫৯ রানে।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪ বলে ১০৫ রান।

প্রায় দেড় মাস পর দলে ফিরেই নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান জিতেছিলেন টসটা। আগে বোলিংয়ের সিদ্ধান্তটা নিতে একটুও দেরি করেননি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। প্রতিপক্ষকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে বোলিং উদ্বোধনের দায়িত্বটাও নিয়েছিলেন সাকিব নিজেই।

দলকে দারুণ সূচনা এনে দিয়ে সাকিব প্রথম ওভারে দিয়েছিলেন মাত্র ৩ রান। অবশ্য সে চাপটা স্বাগতিকদের উপর ধরে রাখতে পারেননি পুরো সিরিজে চমৎকার বোলিং করা রুবেল হোসেন। দ্বিতীয় ওভারে রুবেল গুনেছেন ১২ রান।

পাঁচ টি-টোয়েন্টি একাদশে ফিরে নিজের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই স্বাগতিক শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন সাকিব। দানুশকা গুনাথিলাকাকে ফিরিয়েছিলেন দলপতি। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের বলে সাব্বির রহমানের হাতে ক্যাচ দিয়েছেন লঙ্কান উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান।

এরপর স্বাগতিক ব্যাটসম্যানরা পড়ে মুস্তাফিজুর রহমানের তোপের মুখে। টানা দুই ওভারে এক রানআউটসহ কাটার মাস্টার ফিরিয়ে দেন তিন লঙ্কানকে। প্রথমে কুশল মেন্ডিসকে মুস্তাফিজ পাঠিয়েছিলেন সৌম্য সরকারের হাতে। এরপর উপল থারাঙ্গাকে রানআউটের ফাঁদে ফেলে দাসুন সানাকাকেও বাঁহাতি পেসার ফিরিয়েছেন গোল্ডেন ডাকের স্বাদ দিয়ে।

অবশ্য শেষ দিকের বোলিংয়ে হতাশই করেছেন মুস্তাফিজ। প্রথমে দুই ওভারে দিয়েছিলেন মাত্র চার রান। চার ওভার শেষে মুস্তাফিজের নামের পাশে ছিল ৩৯ রান। অর্থাৎ নিজের শেষ দুই ওভারে ৩৫ রান গুনেছেন তরুণ এই পেসার।

মেহেদী হাসান মিরাজের বলে সুইপ করতে গিয়ে জীবন মেন্ডিস ধরা পড়েন মুস্তাফিজের হাতে। শ্রীলঙ্কান স্কোরকার্ডে রান তখন ৪১, উইকেট নেই ৫টা। দল যখন ঘোর বিপদে উইকেটে আসলেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক থিসারা পেরেরা। জুটি বাঁধলেন আরেক ‘পেরেরা’ কুশলের সঙ্গে।

আর এই জুটিই ম্যাচে ফিরিয়েছে শ্রীলঙ্কাকে। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ৯৭ রানের জুটি তো গড়েছেনই, সাথে এ দুজন দলকে এনে দিয়েছেন লড়াইয়ের পুঁজি। দুজনই পেয়েছেন অর্ধশতক। ৪০ বলে ৬১ রান এসেছিল কুশলের ব্যাট থেকে। অন্যদিকে দলপতি থিসারা সংগ্রহ করেছেন ৩৭ বলে ৫৮ রান।

নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব ফিরে আসায় এ ম্যাচে বাংলাদেশ দলে জায়গা হয়নি আবু হায়দার রনির। শ্রীলঙ্কা দলেও এসেছে দুই পরিবর্তন। সুরাঙ্গা লাকমলের পরিবর্তে দলে এসেছেন পেসার ইসুরু উদানা। অন্যদিকে দুষ্মন্থ চামিরার বদলে দলে ঢুকেছেন বাঁহাতি স্পিনার আমিলা আপোন্সো।

চার ম্যাচে তিন জয় নিয়ে ভারত আগেই নিশ্চিত করে ফেলেছে ফাইনাল। ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ফাইনালে ভারতের প্রতিপক্ষ কে হচ্ছে সেটা জানা যাবে এই ম্যাচের পরেই। ১৮ মার্চ মাঠে গড়াবে নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল ম্যাচটি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত