প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টেনিসে অর্থকষ্ট থাকবে না-
‘চলতি বছর ঢাকায় একাধিক আন্তর্জাতিক আসর’

এল আর বাদল : চলতি বছর (২০১৮) জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে ঢাকার টেনিস অঙ্গন সরব রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন বাংলাদেশ টেনিস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোরশেদ।
আজ ফেডারেশনের কার্যালয়ে এ প্রতিনিধির সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে দায়িত্ব নেওয়ার পর আর্থিক টানাপোড়েনের মধ্য দিয়ে ক্রীড়াপঞ্জি অনুয়ায়ী টেনিসের বিভিন্ন ইভেন্ট মাঠে রাখতে হয়েছে। যারপর নাই চেষ্টা করেছি বছরটি সফলভাবে শেষ করতে। তিনি বলেন, শুধু স্কুল টুর্নামেন্ট অর্থাভাবে বন্ধ রাখতে হয়েছে। গোলাম মোরশেদ বলেন, অর্থ সংকট কাটিয়ে উঠে চলতি বছরটা হবে টেনিসের জন্য আলোড়িত। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আয়োজনের মধ্য দিয়ে বছরটি পার করতে চাই। তিনি বলেন, জাতীয় পর্যায়ে বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস, সিনিয়র (পুরুষ ও মহিলা), জুনিয়র প্রতিযোগিতা, ডিপলোমেট কাপ ও স্কুল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে।
এছাড়া একাধিক আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টও অনুষ্ঠিত হবে রমনা টেনিস কমপ্লেক্সে। টেনিসের কোনো কোনো ইভেন্টে আন্তর্জাতিক আসর বসবে, এই প্রশ্নের উত্তরে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বলেন, অনূর্ধ্ব- ১২, ১৪ ও ১৬ বছর বয়সের (ছেলে ও মেয়ে) আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া মালয়েশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বি-পাক্ষিক টেনিস টুর্নামেন্ট হবে। তিনি বলেন, মালয়েশিয়া তাদের সম্মতি জানিয়েছে। রমনা টেনিস কোর্টে ৯ মার্চ খেলা শুরু হবে।
তিনি বলেন, আমাদের সাধ আছে, সাধ্য নেই। এক বছর ফেডারেশনের দায়িত্বপালনের সময় এই প্রবাদটি বার বার আমার মনে পড়েছে। চলতি বছর কোনো সাধই অপূর্ণ রাখবো না। অর্থ যোগাড় করেই টেনিসের সব আয়োজন সফল করবো। গোলাম মোরশেদ বলেন, জাতীয় পর্যায়ে খেলোয়াড় সৃষ্টির লক্ষ্যে আগামী এপ্রিলে ৬৪ জেলায় পর্যায়ক্রমে স্কুল টেনিসের আয়োজন করা হবে। তিনি আরও বলেন, টেনিস ফেডারেশনের আর্থিক দূরাবস্থা কেটে যাবে। খুব শিগগিরই টেনিসে সম্ভাবনার পথ উন্মোচিত হতে যাচ্ছে।
দেশীয় খেলাধুলার নিয়ন্ত্রক সংস্থা জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ টেনিস ফেডারেশনের দিকে ফিরে তাকিয়েছে। টেনিসের উন্নয়নে তারা ৭ কোটি টাকার বাজেট নিয়ে অবকাঠামোর কাজ শুরু করতে যাচ্ছে। এই কাজ সম্পন্ন হলে টেনিস ফেডারেশনকে আর অর্থকষ্টে ভোগতে হবে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত